দুবাই: দাপুটে ব্যাটিংয়ে আইসিসি টেস্ট ব়্যাংকিংয়ে শীর্ষস্থান ধরে রাখলেন বিরাট কোহলি৷ মঙ্গলবার প্রকাশিত আইসিসি টেস্ট ব্যাটসম্যানদের মধ্যে এক নম্বর জায়গাটা নিজের দখলে রাখলেন ভারত অধিনায়ক৷

শুধু বিরাটই নয়, প্রথম পাঁচ স্থানে কোনও পরিবর্তন হয়নি৷ তবে পাক ব্যাটসম্যান বাবর আজম সম্প্রতি দারুণ পারফর্ম করে টিম ইন্ডিয়ার ভাইস-ক্যাপ্টেন অজিঙ্ক রাহানেকে পিছনে ফেলে তিন ধাপ এগিয়ে ছ’নম্বরে উঠে এসেছেন৷

৯২৮ রেটিং পয়েন্টস নিয়ে এক নম্বরে রয়েছেন কোহলি৷ প্রাক্তন অজি অধিনায়ক স্টিভ স্মিথ ৯১১ রেটিং পয়েন্টস নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন৷ নিউজিল্যান্ড ক্যাপ্টেন কেন উইলিয়ামসন রয়েছেন তিন নম্বরে৷ তাঁর রেটিং পয়েন্টস ৮৬৪৷ চার ও পাঁচ নম্বরে রয়েছেন যথাক্রমে ভারতের চেতেশ্বর পূজারা (৭৯১) ও অস্ট্রেলিয়ার মার্কাস লাবুশানে (৭৮৬)৷

ঘরের মাঠে সম্প্রতি শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে দু’টি সেঞ্চুরি করে তিন ধাপ এগিয়েছেন বাবর আজম৷ এর ফলে ৭৬৭ রেটিং পয়েন্ট নিয়ে ছ’ নম্বরে উঠে এসেছেন পাক ব্যাটসম্যান৷ কেরিয়ারে এটাই সেরা টেস্ট ব়্যাংকিং বাবরের৷ ৭৫৯ রেটিং পয়েন্ট নিয়ে এক ধাপ পিছিয়ে সাত নম্বরে রয়েছেন বিরাট কোহলির ডেপুটি রাহানে৷ আট নম্বরে রয়েছেন ডেভিড ওয়ার্নার৷ বাঁ-হাতি অজি ওপেনারের রেটিং পয়েন্ট ৭৫৫৷ নয় ও দশ নম্বরে রয়েছে যথাক্রমে জো রুট (৭৫২) এবং রস টেলর (৭১৪)৷

বোলারদের মধ্যে এক নম্বরে রয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার ভাইস-ক্যাপ্টেন প্যাট কামিন্স৷ অজি পেসারের রেটিং পয়েন্ট ৮৯৮৷ দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন কাগিসো রাবাদা (৮৩৯) তিন, চার ও পাঁচ নম্বরে রয়েছেন যথাক্রমে নেল ওয়াগনার (৮৩৪), জেসন হোল্ডার (৮৩০) ও মিচেল স্টার্ক (৮০৬)৷ ভারতের নম্বর ওয়ান পেসার জসপ্রীত বুমরাহ রয়েছেন ছ’ নম্বরে৷ অগস্টে শেষ টেস্ট খেলা বুমরাহ ৭৯৪ রেটিং পয়েন্ট নিয়ে ছ’ নম্বর জায়গা ধরে রেখেছেন৷

ওয়ান ডে ক্রিকেটে ব্যাটসম্যানদের মধ্যে প্রথম দু’টি স্থান ধরে রেখেছেন বিরাট কোহলি ও রোহিত শর্মা৷ এক ও দু’ নম্বরে থেকেই বছর শেষ করছেন টিম ইন্ডিয়ার ক্যাপ্টেন ও ভাইস-ক্যাপ্টন৷ টিম ইন্ডিয়ার আরও দুই ব্যাটসম্যান লোকেশ রাহুল ও শ্রেয়স আইয়ার এগিয়ে এসেছেন৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

জীবে প্রেম কি আদৌ থাকছে? কথা বলবেন বন্যপ্রাণ বিশেষজ্ঞ অর্ক সরকার I।