ওয়াশিংটন: মার্কিন প্রেসিডেণ্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বিশ্বের সব দেশকে আহ্বান জানিয়েছেন সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য। ইসলামের চরমপন্থী মনোভাবের বিরুদ্ধে সরব হতে বলেছেন। পাশাপাশি এও জানিয়ে দিয়েছেন যে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র আফগানিস্তানের সঙ্গে সবরকম মধ্যস্ততাই প্রত্যাহার করেছে। তবে এসবকিছুর মাঝে ভারতের কিছুটা অপমানও করলেন তিনি।

মার্কিন প্রেসিডেণ্ট আরও হুঁশিয়ারি দিয়েছেন, ইসলামিক স্টেটের জন্য যে সব ইউরোপিইয়ানরা এই দেশে বন্দী হয়েছে তাঁদের ফিরিয়ে না নিলে আমেরিকা সেইসব লোকজনদের তাঁদের দেশে ছেড়ে দেওয়ার ব্যবস্থা নেবে। সাংবাদিকরা ইরাকে ইসলামিক স্টেট গ্রুপের পুনরুত্থান নিয়ে প্রশ্ন করলে ট্রাম্প জানায়, মার্কিন সেনারা সব চ্রমপন্থী খলিফাদের উপরে ফেলে দিয়েছে।

একটা সময় আসবে যখন রাশিয়া, আফগানিস্তান, ইরান, ইরাক, তুর্কি সকলকেই তাদের নিজদের লড়াইটা লড়তে হবে। আমেরিকা ১০০ শতাংশ খলিফাদের নির্মূল করেছে। শুধুমাত্র তাই নয়, রেকর্ড সময়ে করেছে। কিন্তু একটা সময় আসে যখন সব দেশকেই তাঁর নিজস্ব লড়াই লড়তে হয়। যে সব দেশের আসেপাশে আইসিস এর থাবা বসেছে তাদেরকাই সক্রিয় হতে হবে। এই কথার পরই তিনি প্রশ্ন তোলেন, আমরা সকলে কি আগামি ১৯ বছর এই একই পরিস্থিতিতে থাকতে চাই, আমার মনে হয় না।

তাঁর এই মন্তব্যের মাঝে ভারত ও পাকিস্তানকে বেশি করে তুলে ধরেন যারা জিহাদি দলগুলির সঙ্গে মোকাবিলায় খুব সক্রিয়ভাবে সামনে আসছে না। ভারতকে বেশ কিছুটা কটাক্ষ করে তিনি বলেন, “ভারতকেই দেখুন, ওড়া লড়াই করছে না কিন্তু আমরা করছি। পাকিস্তান ঠিক তার সামনে। তাঁরা লড়াই করছে কিন্তু খুব কম। এটা ঠিক নয়। আমেরিকা সাত হাজার মাইল দূরে অবস্থিত একটা দেশ।”