অ্যান্টিগা: শুরুটা দারুণ করেও স্কোর বোর্ডে বড় রান তুলতে পারল না হরমনপ্রীত-মন্ধনারা৷ মহিলা টি-২০ বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে ইংল্যান্ডের সামনে  ১১৩ রানের লক্ষ্য রাখল ভারতের মেয়েরা৷ শেষ ৮ উইকেটে মাত্র ২৩ রান তোলে ‘উইমেন ইন ব্লু’৷

 

ভিভিয়ান রিচার্ডস স্টেডিয়ামে টস জিতে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে প্রথমে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন ভারতীয় ক্যাপ্টেন হরমনপ্রীত কর৷ তবে সেমিফাইনালে মতো গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে মিতালি রাজের মতো অভিজ্ঞ খেলোয়াড়কে না-খেলানোর মাসুল দিতে হল ভরতকে৷ স্মৃতি মন্ধনা ও তানিয়া ভাটিয়ে ভারতকে দারুণ শুরু দিলেও নিয়মিত উইকেট হারিয়ে ১২০ রানের গণ্ডি ছুঁতে পারল না ভারতের প্রমিলাবাহিনী৷

গত বছর লর্ডসে ৫০ ওভারের বিশ্বকাপ ফাইনালে এই ইংল্যান্ডের কাছে হেরে বিশ্বজয়ের স্বপ্নভঙ হয়েছিল ভারতীয় মেয়েদের৷ এদিন ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে কঠিন টার্গেট দিতে ব্যর্থ হরমনপ্রীতরা৷ স্লো-পিচে ভারতের প্রথম চার ব্যাটার ছাড়া বাকিরা দাঁড়াতেই পারল না৷ ৬ ওভারে ৪৩ রানে প্রথম উইকেট হারানো ভারত শেষ হয়ে যায় মাত্র ১১২ রানে৷ সর্বোচ্চ স্কোর মন্ধনার ৩৪ রান৷ ২৩ বলের ইনিংসে একটি ছয় ও পাঁচটি বাউন্ডারি মারেন স্মৃতি৷

মন্ধনার ওপেনিং পার্টনার তানিয়ার সংগ্রহ ১১৷ তিন নম্বরে নেমে ২৬ রানের গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস খেলেন জেমাইমা রডরিগ্রেজ৷ ক্যাপ্টেন হরমনপ্রীত শুরুটা করেও এদিন বড় রান করতে পারেননি৷ ২০ বলে ১৬ রানে করে ডাগ-আউটে ফেরেন দুরন্ত ফর্মে থাকা হরমনপ্রীত৷ বাকিরা হারাকিরি করতে গিয়ে উইকেট ছুঁড়ে দিয়ে আসেন৷ ভারতের চার ব্যাটার রান-আউট হন৷ ইংল্যান্ডের সফলতম বোলার ক্যাপ্টেন ক্লেয়ার নাইট৷ ২ ওভার হাত ঘুরিয়ে মাত্র ৯ রান খরচ করে তিনটি উইকেট তুলে নিয়ে ভারতীয় ইনিংসকে দ্রুত ছেঁটে ফেলেন ইংল্যান্ড ক্যাপ্টেন৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।