নয়াদিল্লি: ফের কমল সংক্রমণ। রবিবার থেকে সংক্রমণের গ্রাফ নিম্নমুখী। সোমবার যেখানে দৈনিক সংক্রমণ ছিল ৩ লক্ষ ৬৮ হাজার, সেখানে মঙ্গলবার আক্রান্তের সংখ্যা নেমে এসেছে ৩ লক্ষ ৫৭ হাজারে। প্রায় ১০ হাজার কমেছে আক্রান্তের সংখ্যা।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী গত ২৪ ঘন্টায় দেশে করোনা সংক্রমিত হয়েছেন ৩ লক্ষ ৫৭ হাজার ২২৯ জন। গত সপ্তাহে যেভাবে ঊর্ধ্বমুখী হচ্ছিল সংক্রমণ, গত কয়েকদিনের সংখ্যা তার চেয়ে কিছুটা কম। তবে সোমবারের তুলনায় একদিনে মৃত্যুর সংখ্যা অল্প বেড়েছে। সোমবার যেখানে মৃত্যুর সংখ্যা ছিল ৩ হাজার ৪১৭ জন, সেখানে মঙ্গলবার ৩ হাজার ৪৪৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এখনও পর্যন্ত দেশে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ২ কোটি ছাড়িয়ে গিয়েছে। বর্তমানে দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ২ কোটি ০২ লক্ষ ৮২ হাজার ৮৩৩ জন। মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২ লক্ষ ২২ হাজার ৪০৮। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনামুক্ত হয়েছেন ৩ লক্ষ ২০ হাজার ২৮৯ জন। বর্তমানে দেশের মোট অ্যাক্টিভ কেসের সংখ্যা ৩৪ লক্ষ ৪৭ হাজার ১৩৩। দেশে এখনও পর্যন্ত সবমিলিয়ে সুস্থ হয়েছেন ১ কোটি ৬৬ লক্ষ ১৩ হাজার ২৯২ জন। এখনও পর্যন্ত দেশে টিকা পেয়েছেন মোট ১৫ কোটি ৮৯ লক্ষ ৩২ হাজার ৯২১ জন।

দেশের মধ্য়ে সবচেয়ে বেশি করোনা আক্রান্ত হয়েছে মহারাষ্ট্রে। তবে দেশে যেমন আক্রান্তের সংখ্যা কমের দিকে, তেমনই আক্রান্তের সংখ্যা কমেছে মহারাষ্ট্রেও। গত ২৪ ঘণ্টায় মুম্বইয়ে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ২ হাজার ৬২৪ জন। গত ৫ সপ্তাহের তুলনায় এই সংখ্যা সবচেয়ে কম। গত ২৪ ঘণ্টায় মুম্বইয়ে করোনায় আক্রান্ত হয়ে ৭৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। এই নিয়ে শহরের মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়াল ১৩ হাজার ৩৭২। সোমবারের রিপোর্ট অনুয়ায়ী মহারাষ্ট্রে এখনও পর্যন্ত ৬ লক্ষ ৫৮ হাজার ৬২১ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। গত ১৭ মার্চ মুম্বইয়ে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ২ হাজার ৩৭৭ জন। তারপর থেকে ক্রমশই বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। প্রাণঘাতী এই ভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউয়ে কার্যত তছনছ হয়ে গিয়েছে বাণিজ্যনগরী সহ গোটা মহারাষ্ট্র। গত মাসে গোটা দেশের মধ্যে সবচেয়ে ভয়াবহ অবস্থা ছিল মুম্বইয়ের। মহারাষ্ট্র থেকে দিনে ৬০ হাজার আক্রান্তের খবর পাওয়া যাচ্ছিল। তবে মঙ্গলবার ২৪ ঘণ্টার হিসেবে ৪৮ হাজার ৬২১ জন আক্রান্ত হয়েছেন। আক্রান্তের সংখ্যাকে ছাপিয়ে গিয়েছে সুস্থতার সংখ্যা। গত ২৪ ঘণ্টায় ৫৯ হাজার ৫০০ জন সুস্থ হয়েছেন এই রাজ্য়ে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.