নয়াদিল্লি: আজ রবিবার ভারতীয় সেনার বিজয় দিবস। ১৯৭১ সালে আজকের দিনেই পাক সেনাবাহিনীকে পরাস্ত করে বাংলাদেশকে স্বাধীন করে ভারতীয় সেনা।

সেই ঐতিহাসিক মুহূর্ত

১৯৭১ সালে এই দিনে পরাজিত পাকিস্তান সেনাবাহিনীর প্রধান জেনারেল আমির আব্দুল্লাহ্‌ খান নিয়াজি ঢাকার রমনা রেসকোর্সে ৯৩ হাজার সেনাদলের সঙ্গে জেনারেল জগজিৎ সিং আরোরার নেতৃত্বাধীন ভারতীয় সেনাবাহিনী ও বাংলাদেশ মুক্তিবাহিনীর কাছে আত্মসমর্পণ করে।

ভারতে প্রতি বছর ১৬ ডিসেম্বর তারিখটি সেই থেকে “বিজয় দিবস” হিসেবে পালিত হয়ে আসছে। এই দিন রাজধানী নতুন দিল্লিতে ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রী ও সেনাবাহিনীর তিন শাখার প্রধানেরা ইন্ডিয়া গেটের অমর জওয়ান জ্যোতিতে মাল্যদান করেন।

এই বছরেও সেই রেওয়াজের অন্যথা হয়নি। প্রতিরক্ষা মন্ত্রী নির্মলা সীতারামন এদিন সকালে অমর জওয়ান জ্যোতিতে মাল্যদান করেছেন। তাঁর সঙ্গে ছিলেন আর্মি স্টাফের উপপ্রধান লেফটেন্যান্ট জেনারেল দেবরাজ আন্দু, নৌসেনার প্রধান সুনীল লানবা এবং এয়ার চিফ মার্শাল বীরেন্দ্র সিং ধানোয়া। সকলেই ৪৭ বছর আগে ঘটে যাওয়া যুদ্ধের শহিদদের সম্মান জানান।

বিজয় দিবসে বীর যোদ্ধাদের সম্মান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এদিন সকালে ট্যুইটারে তিনি লিখেছেন, “আজ বিজয় দিবসে আমরা ১৯৭১ সালের বীর যোদ্ধাদের অদম্য উৎসাহকয়ে স্মরণ করছি। তাঁদের সাহস এবং জাতীয়তাবাদ আমাদের দেশকে সুরক্ষিত করেছিল। তাঁদের সেই অবদান সকল ভারতীয়কে সর্বদা অনুপ্রেরণা যোগাবে।”

এদিন সকালে যোদ্ধাদের সম্মান জানিয়ে ট্যুইট করেছেন রাষ্ট্রপতি রাম্নাথ কোভিন্দ। তিনি লিখেছেন, “বিজয় দিবসে আমাদের সেনাবাহিনীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি যারা ১৯৭১ সালের যুদ্ধে আমাদের দেশকে রক্ষা করেছিল।” একই সঙ্গে তিনি আরও লিখেছেন, “সেই যুদ্ধে যারা প্রাণ হারিয়েছিলেন তাঁদেরকে আমার শ্রদ্ধা জানাই।” ইংরেজি এবং হিন্দি দুই ভাষাতেই ট্যুইট করেছে রাষ্ট্রপতি।