নয়াদিল্লি: বেলাগাম সংক্রমণ দেশে। দেশজুড়ে আরও বাড়ল নোভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আরও ১৯ হাজার ১৪৮ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। একইসঙ্গে করোনায় গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে মৃত্যু হয়েছে ৪৩৪ জনের। সবমিলিয়ে বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত স্বাস্থ্যমন্ত্রকের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী গোটা দেশে নোভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৬ লক্ষ ৪ হাজার ৬৪১।

একটানা লকডাউনেও সংক্রমণে লাগাম পরানো যাচ্ছে না। প্রতিদিন বাড়ছে মারণ ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা। তবে একদিকে যেমন আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে তেমনি সুস্থও হচ্ছেন অনেকে। বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত দেশে ৩ লক্ষ ৫৯ হাজার ৮৬০ জন করোনামুক্ত হয়েছেন। এই মুহূর্তে দেশে অ্যাক্টিভ করোনা কেস ২ লক্ষ ২৬ হাজার ৯৪৭টি।

দেশের মধ্যে করোনার সর্বাধিক সংক্রমণ মহারাষ্ট্রে। বাণিজ্যনগরী মু্ম্বইয়ের লাগামহীন সংক্রমণে দিশেহারা প্রশাসন। শুধু মুম্বইয়েই করোনা আক্রান্তের সংখ্যা সাত হাজারেরও বেশি।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে আগামী ১৫ জুলাই পর্যন্ত মুম্বইয়ে ১৪৪ ধারা জারি করেছে প্রশাসন। মুম্বইয়ের ডেপুটি পুলিশ কমিশনার জানিয়েছেন ১৪৪ ধারা জারি থাকাকালীন জরুরি প্রয়োজন ছাড়া কারও বাড়ি থেকে বেরনোর অনুমতি নেই। বিধি ভাঙলে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেবে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত মহারাষ্ট্রে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ১ লক্ষ ৮০ হাজার ২৯৮। করোনায় এখনও পর্যন্ত সেরাজ্যে মৃত্যু হয়েছে ৮ হাজার ৫৩ জনের।

সংক্রমণের নিরিখে মহারাষ্ট্রের পরেই রয়েছে তামিলনাড়ু। দক্ষিণের এই রাজ্যে বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত নোভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৯৪ হাজার ৪৯। তামিলনাড়ুতে করোনায় মৃত বেড়ে ১২৬৪।

রাজধানী দিল্লিতেও লাগামছাড়া সংক্রমণ। দিল্লিতে এখনও পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৮৯ হাজার ৮০২ জন। দিল্লিতে করোনায় মৃত্যু বেড়ে ২৮০৩।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ