নয়াদিল্লি: ভারত বিশ্বের বৃহত্তম গণতন্ত্র। কয়েকদিন বাদেই দেশ জুড়ে শুরু হচ্ছে কার্যত সেই বৃহত্তম গণতন্ত্রের ভোটযজ্ঞ। বিজেপি, কংগ্রেস বাদেও সেই মহাযজ্ঞের অংশ হিসেবে, তৃণমূল, সপা, বিএসপি, বিজেডির মত গুটিকয়েক দলের নাম সাধারণ মানুষ জানে। তবে হিসেব বলছে, এই মুহূর্তে দেশে রয়েছে মোট ২২৯৩টি রাজনৈতিক দল।

‘ভরোসা পার্টি’, ‘সবসে বড়ি পার্টি’, ‘রাস্ট্রীয় সাফ নীতি পার্টি’- এমনই সব নামের দল রয়েছে দেশের বিভিন্ন জায়গায়।

শুধু এই বছরেই ১৪৩টি দলের নাম রেজিস্টার করা হয়েছে। গত ৯ মার্চ অর্থঅৎ লোকসভা নির্বাচন ঘোষণার ঠিক আগের দিন পর্যন্ত হয়েছে রেজিস্ট্রেশন। এছাড়া গত বছরের নভেম্বর ও ডিসেম্বরে মধ্যপ্রদেশ, রাজস্থান, তেলেঙ্গানা, মিজোরাম, ছত্তিসগড় থেকে অনেকগুলি নতুন দল তৈরি হয়েছে। ওইসময়ের মধ্যে মোট ৫৮টি দলের নাম রেজিস্টার করা হয়েছে।

জানুয়ারি থেকে মার্চের মধ্যে রেজিস্টার হওয়া দলগুলির মধ্যে রয়েছে বিহারের বহুজন আজাদ পার্টি, কানপুরের সামুহিক একতা পার্টি, দিল্লির সবসে বড়ি পার্টি ইত্যাদি। তবে এইসব দলগুলি কোনও নির্দিষ্ট স্থায়ী চিহ্নে ভোটে লড়তে পারবে না। পোল প্যানেরে কয়েকটি চিহ্নের মধ্যে তাদের একটি বেছে নিতে হবে। কমিশনের তালিকা অনুযায়ী এরকম ৮৪টি চিহ্ন রয়েছে। তার মধ্যে থেকেই বেছে নিতে হবে।

‘রেকগনাইজড পার্টি’ হওয়ার জন্য কোনও নির্দিষ্ট রাজনৈতিক দলকে অন্তত কয়েকটি আসন ভোটে জিততে হবে।