শেখর দুবে, কলকাতা: কাশ্মীরের পুলওয়ামাতে সন্ত্রাসী হামলায় সিআরপিএফ-এর ৪২ জন জওয়ান বীরগতি পেয়েছেন। বৃহস্পতিবার এই মর্মান্তিক সন্ত্রাসবাদী হামলার পর আবারও পাল্টা “সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের” দাবি তুলল বাংলার শহীদের পরিবার। ২০১৬ সালের ১৮ সেপ্টেম্বর কাশ্মীরের উরি সেনা ছাউনিতে হঠাৎ আক্রমণ করেছিল পাকিস্তানি সন্ত্রাসবাদীরা। লড়াইয়ে শহীদ হয়েছিলেন ১৯ জন ভারতীয় জওয়ান। যার মধ্যে একজন ছিলেন গঙ্গাধর দলুই।

আরও পড়ুন : ভারতের হাতে মার খাওয়ার ভয়ে দায় এড়াল পাকিস্তান

হাওড়ার বেলে প্রতাপপুরের ছেলে গঙ্গাধর ২০১৪ সালে আর্মিতে যোগ দিয়েছিলেন। এই মর্মান্তিক ঘটনা যেন পুরনো আঘাতকে আবার চাগিয়ে দিল হাওড়ার বেলে প্রতাপপুরের দলুই বাড়িতে। উরি হামলায় শহীদ গঙ্গাধরের ভাই বরুণ দলুইয়ের বক্তব্য, কাল ঘটনাটা টিভিতে দেখার পর থেকে ভীষণ হতাশ। কখনও রাগ হচ্ছে। কখনও কষ্ট। তিন বছরও পেরোয়নি, আবার সন্ত্রাসবাদী হামলা। আবার কিছু সৈনিক মারা গেল। কেন্দ্র সরকারের উচিৎ আরও বড় করে সার্জিক্যাল স্ট্রাইক করে ওদের উচিৎ শিক্ষা দেওয়া।

‘সার্জিক্যাল স্ট্রাইক’ জ্বালা কমিয়েছে, বলছে বাংলার উরি শহিদের ভাই

‘হাও ইজ দ্য জোশ? হাই স্যার?’ উরি: দ্য সার্জিক্যাল স্ট্রাইক’ সিনেমার দৌলতে এই ডায়লগ এখন ভারতের সিনেমাপ্রেমীদের মুখে মুখে ঘুরে বেড়াচ্ছে। একই রকম ‘হাই জোসের’ ছবি ধরা পড়ল হাওড়ার জগৎবল্লভপুরে বেলে প্রতাপপুরের শিখা দলুইয়ের গলায়। উরি-তে শহিদ হওয়া গঙ্গাধর দলুইয়ের মা। হাজার লাইক-শেয়ার শহীদ মায়ের কথা দেশবাসীর কাছে পৌঁছে দিনhttps://bit.ly/2U8TsQ1

Kolkata24x7 यांनी वर पोस्ट केले बुधवार, २३ जानेवारी, २०१९

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ