ক্রাইশ্চচার্চ: দ্বিতীয় টেস্টেও ভারতের ব্যাটিং বিপর্যয় অব্যাহত৷ শনিবার ক্রাইশ্চচার্চের হ্যাগলে ওভালে প্রথম দিন চা-বিরতিতে পাঁচ উইকেট হারিয়ে ১৯৫ রান তুলেছে ভারত৷ চা-বিরতির ঠিক আগে উইকেট ছুঁড়ে দিয়ে আসেন হনুমা বিহারী৷ হাফ-সেঞ্চুরি করে ক্রিজে রয়েছেন চেতেশ্বর পূজারা৷

টস হেরে হ্যাগলে ওভালের গ্রিন টপে প্রথমে ব্যাটিং করতে হয় ভারতকে৷ মেঘলা আবহাওয়া ও ঘাসের পিচে ইনিংসের শুরটা মন্দ হয়নি ভারতের৷ পৃথ্বী শ ও ময়াঙ্ক আগরওয়াল ওপেনিং জুটিতে ৩০ রান যোগ করেন৷ ময়াঙ্ক ব্যক্তিগত ৭ রানে প্যাভিলিয়নের রাস্তা ধরলেও পৃথ্বীর আক্রমণাত্মক ব্যাটিংয়ে মাত্র ১২ ওভারের হাফ-সেঞ্চুরিপূর্ণ করে ভারত৷ তবে বেশি আক্রমণাত্মক হতে গিয়ে উইকেট ছুঁড়ে দিয়ে আসেন পৃথ্বী৷ তাঁর মতোই হাফ-সেঞ্চুরি পূর্ণ করার পর বেশি আক্রমণাত্মক হতে গিয়ে উইকেট ছুঁড়ে দিয়ে আসেন বিহারীও৷ ৭০ বলে ৫৫ রান করেন তিনি৷ ভারতের একমাত্র ভরসা হাফ-সে়ঞ্চুরি করে এখনও ক্রিজে রয়েছেন পূজারা৷

প্রথম টেস্টে রান পেলেও এদিন মাত্র ৭ রানে প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন পৃথ্বীর ওপেনিং পার্টনার ময়াঙ্কা আগরওয়াল৷ ৬৪ বলে ৮টি বাউন্ডারি ও একটি ওভার বাউন্ডারির সাহায্যে ৫৪ রানে প্যাভিলিয়নের রাস্তা ধরেন পৃথ্বী৷ কাইল জেমিসনের অফ-স্টাম্পের বাইরের ডেলিভারি মারতে গিয়ে স্লিপে ধরা পড়েন তিনি৷ স্পট-জাম্প দিয়ে এক হাতে দুরন্ত ক্যাচ নেন টম লাথাম৷ এর পর ক্রিজে আসে ক্যাপ্টেন কোহলি৷ প্রথম বল মিড-উইকেটে ঠেলে দিয়ে তিন রান নেন বিরাট৷ ৮৫ রানে দুই উইকেট হারিয়ে লাঞ্চে যায় ভারত৷

কিন্তু মধ্যাহ্নভোজ সেরে মাঠে ফিরেই সাউদির শিকার হন কোহলি৷ মিডল-স্টাাম্পের বলে সাফল করে এসে এলবিডব্লিউ হন ভারত অধিনায়ক৷ রিভিউ নিয়েও শেষরক্ষা হয়নি৷ তৃতীয় আম্পায়ার আলিম দারও বিরাটকে আউট দেন৷ ফলে ব্যক্তিগত ৩ রানে প্যাভিলিয়নে ফেরেন কোহলি৷ ৮৫ রানে তিন উইকেট হারায় ভারত৷ ওয়েলিংটনে সিরিজের প্রথম টেস্টেও রান পাননি বিরাট৷ বেসিন রিজার্ভের দুই ইনিংসে তাঁর অবদান ছিল ২ ও ১৯৷

কোহলি আউট হওয়ার পর পূজারার সঙ্গে দলকে টানেন বিহারী৷ কারণ বিরাট আউট হওয়ার পর মাত্র ৭ রান করে প্যাভিলিয়নে ফিরে যান ভাইস-ক্যাপ্টেন অজিঙ্ক রাহানেও৷ পূজারা ও বিহারী ভারতীয় ইনিংসকে এগিয়ে নিয়ে যায়৷ কিন্তু হাফ-সে়ঞ্চুরি করে প্যাভিলিয়নের রাস্তা ধরেন বিহারীও৷ ৫৫ বলের ইনিংসে ১০টি বাউন্ডারি মারেন তিনি৷

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প