নয়াদিল্লি: চরম বিতর্কের মুখে পড়ে ফেসবুক ছাড়লেন ইন্ডিয়া হেড আঁখি দাস।

ফেসবুকের বিরুদ্ধে পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ তুলেছিল বিরোধীরা। তার মাস কয়েক পরই এমন সিদ্ধান্ত নিলেন আঁখি।

ফেসবুক ইন্ডিয়ার ম্যানেজিং ডিরেক্টর অজিত মোহন ইমেলে একটি বিবৃতি ইয়ে জানিয়েছেন, পাবলিক সার্ভিসে উৎসাহ আছে বলেই ফেসবুক থেকে পদত্যাগ করলেন আঁখি দাস। তিনি আরও জানিয়েছেন গত ৯ বছরে ফেসবুকে আঁখি দাসের বিশেষ অবদান রয়েছে। তিনি ভারতের ফেসবুকের প্রথম দিকের কর্মী বলেও জানিয়েছেন অজিত মোহন।

এর আগে ব্যক্তিগত তথ্যের নিরাপত্তা সংক্রান্ত যৌথ সংসদীয় কমিটির মুখোমুখি হন ফেসবুকের ইন্ডিয়ার পাবলিক পলিসি ডিরেক্টর আঁখি দাস। সংসদীয় কমিটি তাঁকে প্রায় দু’ঘণ্টা ধরে জিজ্ঞাসাবাদ করে। বিজ্ঞাপন ব্যবসা বা নির্বাচনের মত বিষয়গুলিতে কোনরকম অনুমানমূলক উদ্দেশ্যে ফেসবুক নাগরিকদের ব্যক্তিগত তথ্য ব্যবহার করা যাবে না তাদের জানানো হয়। এছাড়া একাধিক সা়ংসদ এই সংস্থার কত আয় এবং কত কর দিতে হয় ইত্যাদি তথ্য জানতে চায়।

কিছুদিন আগেই এদেশে ফেসবুকের ভূমিকা নিয়ে বিতর্ক শুরু হয়েছে। কারণ বিদেশি সংবাদপত্রে প্রতিবেদন বের হয়ে ছিল ব্যবসায়িক স্বার্থে ফেসবুক ভারতে বিজেপি নেতাদের উস্কানিমূলক পোষ্টের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছে না। সেজন্য এই আঁখি দাসের ভূমিকা নিয়ে অভিযোগ উঠেছিল তখন।ওই খবর জানাজানি হওয়ার পর কংগ্রেস সহ বিরোধীরা এই ইস্যুতে বিজেপির বিরুদ্ধে সরব হয়। এই নিয়ে যৌথ সংসদীয়় কমিটি গঠনের দাবি উঠেছিল।

দেশে এবং বিদেশের একাধিক সংবাদমাধ্যমে টানা দু'দশক ধরে কাজ করেছেন । বাংলাদেশ থেকে মুখোমুখি নবনীতা চৌধুরী I