আহমেদাবাদ: কাজে এল না দ্বিতীয়ার্ধের প্রশংসিত লড়াই। উত্তর কোরিয়ার কাছে ২-৫ গোলে পরাজিত হয়ে দেশের মাটিতে অনুষ্ঠিত ইন্টারকন্টিনেন্টাল কাপ থেকে কার্যত ছুটি হয়ে গেল সুনীল ছেত্রীদের। খাতায়-কলমে চার দলীয় টুর্নামেন্টের ফাইনালে যাওয়ার সুযোগ এখনও রয়েছে স্টিম্যাচের ছেলেদের কাছে, সেক্ষেত্রে গ্রুপের শেষ ম্যাচে সিরিয়াকে বড় ব্যবধানে হারাতে হবে সুনীলদের। শুধু তাই নয়, উত্তর কোরিয়াকে হারতে হবে তাজিকিস্তানের কাছে।

সে যাইহোক গত রবিবার তাজিকিস্তানের বিরুদ্ধে প্রথমার্ধে সুনীল ছেত্রীর জোড়া গোলে এগিয়ে গিয়েও ম্যাচ জিততে ব্যর্থ হয়েছিল ইগর স্টিম্যাচের দল। দ্বিতীয়ার্ধে রক্ষণের দৈন্যদশায় ৪ গোল হজম করতে হয় ভারতকে। শনিবার প্রথমার্ধে ৩ গোল হজম করে দ্বিতীয়ার্ধে ম্যাচে কিছুটা ফিরে আসে মেন ইন ব্লু। তবে শেষরক্ষা হয়নি। যদিও দ্বিতীয়ার্ধে স্টিম্যাচের জোড়া পরিবর্তনে ভারতের খেলায় কিছুটা ঝাঁঝ ফেরে।

আরও পড়ুন: এক নম্বর লিগে খেলতে চাই, কল্যাণ চৌবের উদ্যোগে বিজয়বর্গীর শরণাপন্ন ইস্ট-মোহন

প্রথমার্ধের ৮ মিনিট ও ২৮ মিনিটে অধিনায়ক জন গুয়ানের জোড়া গোল, ১৬ মিনিটে সিম হিয়ন জিনের গোলে ম্যাচ মুঠোয় পুড়ে নেয় উত্তর কোরিয়া। প্রথমার্ধে ৩ গোলে পিছিয়ে থেকে লকাররুম থেকে ফিরে একাদশে জোড়া পরিবর্তন আনেন ভারতের ক্রোট কোচ। মনবীর সিং ও ব্র্যান্ডন ফার্নান্দেজের বদলি হিসেবে স্টিম্যাচ মাঠে নামান লালিয়ানজুয়ালা ছাংতে ও উদান্তা সিংকে। জোড়া পরিবর্তনের পর ছাংতে-ছেত্রী যুগলবন্দিতে ৫১ মিনিটে ব্যবধান কমিয়ে আনে ভারত। ছেত্রীর অ্যাসিস্টে গোল করে যান ছাংতে। কিন্তু দু’মিনিট বাদেই ম্যাচের নায়ক কোরিয়া দলনায়ক গুয়ানের অ্যাসিস্টে ম্যাচে দলের হয়ে চতুর্থ গোলটি করে যান রি চল।

আরও পড়ুন: জল্পনার অবসান, অ্যাটলেটিকো ছেড়ে বার্সায় গ্রিজম্যান

১-৪ ব্যবধানে পিছিয়ে থাকা অবস্থায় ৭১ মিনিটে উদান্তার ক্রস থেকে আন্তর্জাতিক কেরিয়ারের ৭১ তম গোলটি করেন সুনীল ছেত্রী। ব্যবধান কমে দাঁড়ায় ২-৪। ম্যাচের অতিরিক্ত সময়ে ভারতের কফিনে শেষ পেরেকটি পুঁতে ৫ গোলের বৃত্ত সম্পূর্ণ করেন রি হিয়ং জিন। ম্যাচ হেরে ভারতের কোচ স্টিম্যাচ জানান, ‘দ্বিতীয়ার্ধে ছেলেরা অনেক বেশি সাহসী ও আত্মবিশ্বাসী ফুটবল খেলেছে ছেলেরা। আমি নতুন ছেলেদের দেশের জার্সিতে খেলার সুযোগ করে দিয়েছি এবং তাদের বলেছি খেলাটাকে উপভোগ করতে। কিন্তু তোমরা যদি সাহসী হয়ে লড়াই না করো, তাহলে জিততে পারবে না।’