দোহা: দুরন্ত ফুটবল উপহার দিল ভারত৷ ২০২২ ফিফা বিশ্বকাপ কোয়ালিফায়ারে অ্যাওয়ে ম্যাচে কাতারকে রুখে দিল ইগর স্টিমাচের ছেলেরা৷ সুনীল ছেত্রীকে ছাড়াই ফিফা ব়্যাংকিংয়ে ৬২ নম্বরে থাকা কাতারের বিরুদ্ধে ড্র (০-০) করল ১০৩ নম্বরে থাকা ভারত৷ এশিয়ান চ্যাম্পিয়ন কাতারের বিরুদ্ধে দস্তানা হাতে ‘মেন ইন ব্লু’-র পরিত্রাতা হয়ে ওঠেন গ্রুরপ্রীত সিং সান্ধু৷

বিশ্বকাপের কোয়ালিফায়ারের প্রথম রাউন্ডের প্রথম ম্যাচে ঘরের মাঠে আশার প্রদীপ জ্বালিয়েও ম্যাচ হারতে হয়েছিল ভারতকে৷ ভারতীয় ফুটবল দলের চিরাচরিত সেই রোগ ফের দেখা গিয়েছিল গুয়াহাটিতে৷ বৃহস্পতিবার ওমানের কাছে ২-১ গোলে হার হজম করতে হয়েছিল সুনীল ছেত্রীদের। কিন্তু মঙ্গলবার দোহায় এশিয়ান চ্যাম্পিয়নদের বিরুদ্ধে সাহসী ফুটবল উপরহার দিল স্টিমাচের ছেলেরা৷

চোটের জন্য ক্যাপ্টেন সুনীলকে বাইরে রেখেই দল সাজিয়েছিলেন ভারতীয় দলের ক্রোয়েশিয়ান কোচ৷ ছেত্রীর অনুপস্থিতিতে সন্দেশ ঝিনগান ভারতীয় দলকে নেতৃত্ব দেন৷ গ্রুরপ্রীতের দুরন্ত সেভ এবং ঝিনগান, আদিল খান ও উদান্ত সিং এদিন দুর্দান্ত ফুটবল খেলেন কাতারবাসীর হৃদয় জয় করেন৷ শেষ মুহূর্তে উদান্ত সহজ সুযোগ মিস না-করলে দোহা থেকে হাসি মুখে ফিরত ভারত৷ ঠিক আট বছর আগে বিশ্বকাপের কোয়ালিফাইয়ার ম্যাচে যেভাবে আর্মান্দো কোলাসোর ভারত৷ ম্যাচের আশি মিনিটের মাথায় গোলকিপারকে একা পেয়েও তেকাঠিতে বল রাখতে পারেননি উদান্ত৷ অনুরুদ্ধ থাপাও সুযোগ কাজে লাগাতে পারল শেষ হাসি হাসত ভারত৷

ছেলেদের খেলায় অবশ্য খুশি কোচ স্টিমাচ৷ দোহা রওনা হওয়ার আগে সান্ধুদের ‘হেডস্যর’ তথা ক্রোয়েশিয়ার প্রাক্তন বিশ্বকাপার বলেছিলেন, কাতার শক্তিশালী দল ঠিকই। তবে আমাদের ছেলেরা সাহসী ফুটবল খেলবে। দল জিতলে না-পারলেও ছেলেদের খেলায় খুশি স্টিমাচ৷ ম্যাচের পর ছেলেদের জড়িয়ে ধরেন তিনি৷ ক্যাপ্টেন ব্র্যান্ড পরে এদিন দলকে সামনে থেকে নেতৃত্ব দেন গ্রুরপ্রীত৷ বেশ কয়েকটি দুর্দান্ত সেভ করেন ভারতীয় গোলকিপার৷

ম্যাচের প্রথমেই অবশ্য এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ পেয়েছিল ভারত৷ দোহার বিন হামাম স্টেডিয়ামে শুরু ও শেষ দিকে বেশ কয়েকটি সুযোগ হাতছাড়া করে ভারতীয় খেলোয়াড়রা৷ তবে প্রথমার্ধে কাতার ফরোয়াড়দের চেষ্টাও ব্যর্থ করেন গ্রুরপ্রীত৷ বেশ কয়েকটি দুর্দান্ত সেভ করে ভারতকে ম্যাচে জিইয়ে রাখেন তিনি৷ দ্বিতীয়ার্ধের কয়েকটি সিটার ধরে ফুটবল প্রেমীদের হৃদয় জয় করে নেন ভারতীয় এই গোলকিপার৷ ই-গ্রুপে রবিবার ভারতের পরের ম্যাচে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে৷ দুই ম্যাচে এক পয়েন্ট নিয়ে চার নম্বরে রয়েছে ভারত৷