নয়াদিল্লি : সন্ত্রাস বিরোধী নয়া আইনে জয়েশ ই মহম্মদ প্রধান মৌলানা মাসুদ আজহার, জামাত উদ দাওয়ার প্রধান হাফিজ সইদকে সন্ত্রাসবাদী বলে ঘোষণা করল কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক। এছাড়াও লস্কর ই তইবার প্রধান জাকির উর রহমান লকভি ও ১৯৯৩-এর ধারাবাহিক বিস্ফোরণে সঙ্গে জড়িত মাস্টার মাইন্ড দাউদ ইব্রাহিমকেও এই নতুন ‘ইউএপিএ’ আইনে সন্ত্রাসবাদী বলে ঘোষণা করল স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের তরফে আগাম নির্দেশিকা জারি করে জয়েশ-ই-মহম্মদের প্রধান মাসুদ আজহারকে এবং অবৈধ কাজকর্মের জন্য তার সংগঠনকে টেররিস্ট বলে চিহ্নিত করা হয়েছে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের তরফে একটি নির্দেশিকা জারি করে ১৯৬৭ সালের আনলফুল অ্যাক্টিভিটিস প্রিভেনশন আইন অনুযায়ী মাসুদ আজহারের সংগঠন জয়েশ-ই- মহম্মদকে সন্ত্রাসবাদী বলে ঘোষণা করল সরকার।

স্বরাস্ট্রমন্ত্রকের তরফে বুধবার একটি বিবৃতি দিয়ে জানানো হয়েছে যে, জয়েশ-ই- মহম্মদের প্রধান মাসুদ আজহার এবং তার সংগঠন প্রতিনিয়ত জঙ্গি কার্যকলাপে মদত দেয় এবং ভারত বিরোধী জঙ্গি কার্যকলাপে তাঁদের সংগঠন মানুষদের যুক্ত করার চেষ্টা করে। জাতীয় গোয়েন্দা সংস্থার কাছে পাঠানকোটের বায়ুসেনা ঘাঁটিতে হামলা সহ একাধিক জঙ্গি কার্যকলাপের অভিযোগে আজহারের নাম নথিভুক্ত করা আছে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক থেকে জারি করা নোটিশে লস্কর-ই- তইবার প্রধান হিসাবে হাফিজ মহম্মদ সইদকে চিহ্নিত করা হয়েছে। সরকারি সূত্রে জানা গিয়েছে ভারতের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবাদী আক্রমণের প্রচুর অভিযোগ রয়েছে হাফিজের বিরুদ্ধে।