নয়াদিল্লি: ভারতের ঝুলিতে তিন-তিনটি বিশ্বকাপ থাকলেও নতুন করে বিশ্বকাপে অভিষেক হতে চলেছে ভারতের৷ আগামী বছর কেপ টাউনে পঞ্চাশোর্ধ বিশ্বকাপে অভিষেক হবে ভারতের৷ এছাড়াও অভিষেক হবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ, নামিবিয়া ও জিম্বাবোয়ের৷ বিশ্বকাপ চলবে ১১ থেকে ২৪ মার্চ৷

প্রথমবার পঞ্চাশোর্ধ ক্রিকেট বিশ্বকাপ অংশ নিতে চলেছে ভারত৷ ভারতীয় দলকে নেতৃত্ব দেবেন শৈলেন্দ্র সিং৷ ৫০ ওভারের এই টুর্নামেন্টে ভারতের প্রথম ম্যাচ ১১ মার্চ ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে৷ ভারতের সঙ্গে ‘বি’ ডিভিশনে রয়েছে পাকিস্তান, ইংল্যান্ড ও দক্ষিণ আফ্রিকা, ওয়েলস ও নামিবিয়া৷ আর ‘এ’ ডিভিশনে রয়েছে অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড, কানাডা, শ্রীলঙ্কা, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও জিম্বাবোয়ে৷

ভারতীয় দলের ক্যাপ্টেন শৈলেন্দ্র সিং বলেন, ‘আমি বোম্বে জিমখানায় ১৫ বছর নেতৃত্ব দিয়েছি৷ ’৮৩-র দলে আমি প্রতিনিধিত্ব করেছিলাম৷ ইংল্যান্ড ও স্কটল্যান্ডে আমি কাউন্টি ক্রিকেট খেলেছি৷ বিশ্বকাপে ভারতকে নেতৃত্ব দেবে ভেবে উচ্ছ্বসিত৷ দেশকে বিশ্বকাপ দিয়ে গর্বিত করতে চাই৷’ পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ভারত খেলবে ১৩ মার্চ৷

প্রথম পঞ্চাশোর্ধ ক্রিকেট বিশ্বকাপ হয় গত বছর৷ ২০১৮ নভেম্বরে সিডনিতে আট দলের এই বিশ্বকাপে অংশ নিয়েছিল অস্ট্রেলিয়া, পাকিস্তান, ইংল্যান্ড, ওয়েলস, দক্ষিণ আফ্রিকা, নিউজিল্যান্ড, কানাডা ও শ্রীলঙ্কা৷ অর্থাৎ ভারতের থেকে আগে অভিষেক হয়েছে ওয়েলসের৷ তিন সপ্তাহ ধরা এই বিশ্বকাপ ফাইনালে পাকিস্তানকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় অস্ট্রেলিয়া৷ পিঙ্ক বলের এই টুর্নামেন্টে গত বছর ৪৫ ওভারের ম্যাচ হলেও ২০২০ বিশ্বকাপে ম্যাচ হবে ৫০ ওভারের৷

পঞ্চাশোর্ধ বিশ্বকাপ নিয়ে ভীষণ উত্তেজিত ভারতের বিশ্বকাপ জয়ী প্রথম অধিনায়ক কপিল দেব৷ তিনি বলেন, ‘শৈলেন্দ্রের কাছে এটা দারুণ মুহূর্ত৷ পঞ্চাশোর্ধ বিশ্বকাপে ভারতকে ও নেতৃত্ব দেবে৷ ওর এবং দলের প্রতি আমার শুভেচ্ছা রইল৷ ভালো খেলো এবং খেলাটা উপভোগ কর৷’