নয়াদিল্লি: আবারও একদিনের নিরিখে দেশে সর্বোচ্চ সংক্রমণের রেকর্ড। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা আক্রান্ত হলেন ৬২ হাজারেরও বেশি মানুষ। একইসঙ্গে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনার বলি ৮৮৬ জন। করোনার লাগামছাড়া সংক্রমণে ত্রস্ত দেশ। রাজ্যে-রাজ্যে লাফিয়ে বাড়ছে সংক্রমণ। পাল্লা দিয়ে বাড়ছে মৃত্যু। করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় দিশেহারা একাধিক রাজ্যের প্রশাসন। সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতি দেখে ঘোরতর উদ্বিগ্ন কেন্দ্রীয় সরকার।

মাত্রাছাড়া সংক্রমণ গোটা দেশে। একদিনের নিরিখে আবারও সর্বোচ্চ সংক্রমণ গোটা দেশে। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনা আক্রান্ত হলেন ৬২ হাজার ৫৩৮ জন।

দেশে করোনায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়ে গেল ২০ লক্ষের গণ্ডি। শুক্রবার সকালে স্বাস্থ্যমন্ত্রকের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী দেশে নোভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ২০ লক্ষ ২৭ হাজার ৭৫। করোনায় দেশে মোট মৃত্যু বেড়ে ৪১ হাজার ৫৮৫।

স্বাস্থ্যমন্ত্রকের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী এই মুহূর্তে ৬ লক্ষ ৭ হাজার ৩৮৪টি অ্যাক্টিভ করোনা কেস রয়েছে গোটা দেশে। অধিকাংশ আক্রান্তই সুস্থ হয়ে উঠেছেন। এখনও পর্যন্ত করোনামুক্ত হয়েছেন ১৩ লক্ষ ৭৮ হাজার ১০৬ জন। অর্থাৎ একদিকে আক্রান্তের সংখ্যা যেমন বাড়ছে, তেমনি বাড়ছে সুস্থ হয়ে ওঠা রোগীর সংখ্যাও। অনেক ক্ষেত্রেই মৃদু উপসর্গ থাকা আক্রান্তদের বাড়িতে থেকেই চিকিৎসা চলছে।

দেশের মধ্যে সর্বাধিক করোনা সংক্রমিত রাজ্য মহারাষ্ট্র। মারাঠাভূমে এখনও পর্যন্ত ৪ লক্ষ ৭৯ হাজার ৭৭৯ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। মহারাষ্ট্রে করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৬ হাজার ৭৯২। মহারাষ্ট্রের পরেই সংক্রমণের নিরিখে দেশে দ্বিতীয় স্থানে তামিলনাড়ু।

দক্ষিণের এই রাজ্যে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ২ লক্ষ ৭৯ হাজার ১৪৪। শুক্রবার সকাল পর্যন্ত অন্ধ্রপ্রদেশে ১ লক্ষ ৯৬ হাজার ৭৮৯, কর্নাটকে ১ লক্ষ ৫৮ হাজার ২৫৪, দিল্লিতে ১ লক্ষ ৪১ হাজার ৫৩১ জন করোনা আক্রান্তের সন্ধান মিলেছে।

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও