নয়াদিল্লি: বাড়ছে সংক্রমণ। দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হল ১৩৫৬ জন। মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত দেশে মারণ ভাইরাসের বলি ৩৩ জন।

আগামী কয়েকদিনে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে এমনই আশঙ্কা। এখনও পর্যন্ত আক্রান্তদের সংস্পর্শে এসেছেন এমন শতাধিক মানুষকে আইসোলেশনে রাখা হয়েছে।

পরিস্থিতি মোকাবিলায় দেশজুড়ে চলছে লকডাউন। মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত করোনা আক্রান্ত ১৩৮ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

মহারাষ্ট্রেই সবচেয়ে বেশি করোনার সংক্রমণ। ইতিমধ্যেই এই রাজ্যে ২৪৩ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। মহারাষ্ট্রের পরেই রয়েছে কেরল। করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ২৩৪ জন।

লাদাখে ১৩ জন, মধ্যপ্রদেশের ৪৭ জন,মনিপুরে ১, মিজোরামে একজন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। সংক্রমণ ছড়িয়েছে ওডিষাতেও। করোনা আক্রান্ত তিনজন। পুদুচেরিতে এক, রাজস্থানে ৮৩. তামিলনাড়ুতে ৬৭ জন ও তেলেঙ্গানায় এখনো পর্যন্ত ৭৭ জনের শরীরে মিলেছে করোনার সংক্রমণ।

মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত উত্তরপ্রদেশে ৯৬, উত্তরাখণ্ডে ৭, আন্দামান ও নিকোবর দ্বীপপুঞ্জে ১০, অন্ধপ্রদেশে ২৩, বিহারে ১৫, ছত্তিশগড়ে ৮, চণ্ডীগড়ে ১৩, দিল্লিতে ৯৭ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। কর্নাটকেও ভয়াবহ পরিস্থিতি। ৯১ জন আক্রান্ত হয়েছেন।

জম্মু-কাশ্মীরে ও ক্রমেই ছড়াচ্ছে করোনার সংক্রমণ। এখনও পর্যন্ত ৪৯ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন।

এছাড়া মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত গোয়ায় ৫, গুজরাটে ৭০, হরিয়ানায় ৩৬ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন।

পশ্চিমবঙ্গের নতুন করে আরও তিনজন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন. বাংলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ২৬। একইসঙ্গে পশ্চিমবঙ্গে মৃতের সংখ্যাও বেড়েছে। করোনা আক্রান্ত এখন পর্যন্ত বাংলায় তিনজনের মৃত্যু হয়েছে।