নয়াদিল্লি: দেশে ফের কিছুটা কমলো করোনা(Covid-19) আক্রান্তের সংখ্যা। এ নিয়ে পরপর দুদিন নামলো দেশের দৈনিক করোনার সংক্রমণ। গত ২৪ ঘন্টায় আক্রান্ত হল ৩ লক্ষ ২৬ হাজার। যা আগের দিনের থেকে কয়েক হাজার কম। স্বাস্থ্য আধিকারিকদের স্বস্তি দিয়ে বাড়লো করোনা জয়ীর সংখ্যা। এদিন আক্রান্তের তুলনায় করোনা জয়ীর সংখ্যা প্রায় ৩০ হাজার বেশি।

শনিবার কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের দেওয়া পরিসংখ্যান অনুযায়ী, দেশে গত ২৪ ঘন্টায় করোনা আক্রান্ত হয়েছে ৩ লক্ষ ২৬ হাজার ৯৮ জন। যা শুক্রবারের থেকে অনেকটাই কম। শুক্রবার আক্রান্ত হয়েছিল ৩ লক্ষ ৪৩ হাজার ১৪৪ জন। করোনাকে জয় করে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে ৩ লক্ষ ৫৩ হাজার ২৯৯ জন। যা দৈনিক আক্রান্তের থেকে বেশ খানিকটা বেশি।এখনও পর্যন্ত মোট আক্রান্তের সংখ্যা ২ কোটি ৪৩ লক্ষ ৭২ হাজার ৯০৭জন। করোনাজয়ীর সংখ্যা আশার আলো দেখাচ্ছে চিকিৎসকদের। গত একদিনে করোনার বলি হয়েছে ৩ হাজার ৮৯০ জন। টানা দুদিন কমলো মৃত্যু সংখ্যাও। শুক্রবার করোনার কামড়ে মৃত্যু হয়েছিল চার হাজারের উপরে। এখন পর্যন্ত মোট মৃত্যু হয়েছে ২ লক্ষ ৬৬ হাজার ২০৭ জনের। মোট সক্রিয় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা কমে দাঁড়িয়েছে ৩৬ লক্ষ ৭৩ হাজার ৮০২। গতকাল ছিল ৩৭ লক্ষ ৪ হাজার ৮৩৯ জন। এখনও পর্যন্ত ১৮ কোটি ৪ লক্ষ ৫৭ হাজার ৫৭৯ জনের টিকাকরণ করা হয়েছে।

ভারতে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ এভাবে আছড়ে পড়ার পিছনে রাজনৈতিক ও ধর্মীয় সমাবেশকে দায়ী করেছেন বিশেষজ্ঞরা। তাঁরা ২০২০-র অক্টোবর মাস থেকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে দেশে করোনার দ্বিতীয় ঝাপ্টা আসা নিয়ে সতর্ক করেছিলেন। কিন্তু ভারত সরকার তার কিছু পরেই দেশকে করোনা মুক্ত ঘোষণা করে দেয়। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (Nrendra Modi) আজ কোভিড -১৯ সংক্রমণ এবং টিকা দেওয়ার বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে একটি উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক করবেন। জানা গিয়েছে যে সকাল ১১ টায় এই সভা অনুষ্ঠিত হবে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.