নয়াদিল্লি: ভারতেই মাটিতেই খোঁজ পাওয়া গেল বিশ্বের প্রাচীনতম লাল শেঁওলার। মঙ্গলবার দেশের বিজ্ঞানীরা এই জীবাশ্ম উদ্ধার করেছেন। তারা মনে করছেন যে প্রায় ১.৬ বিলিয়ন বছর আগের লাল শেঁওলার জীবাশ্ম এটি।
এর আগে প্রাচীনতম লাল শেওলা জাতীয় উদ্ভিদের জীবাশ্ম হিসেবে যেটি পাওয়া গিয়েছিল তার বয়স ছিল ১.২ বিলিয়ন বছর।

আরও পড়ুন: বিজ্ঞানীরা খুঁজে পেলেন বিশ্বের সব থেকে পুরনো জীবাশ্ম

পৃথিবীতে প্রাণের অস্তিত্ব ঠিক কবে থেকে তৈরি হয়েছিল তা নিয়ে বিজ্ঞানীদের মধ্যে নানারকম মত রয়েছে। কিন্তু তারা নিশ্চিত করে জানিয়েছেন যে ৬০০ মিলিয়ন বছর আগেই বৃহৎ বহুকোষীদের অস্তিত্ব পাওয়া ছিল। তাই নতুন করে ভারতে এই লাল শেওলার জীবাশ্ম আবিষ্কারের পর যে পৃথিবীর ইতিহাসে আবার নতুন কিছু তথ্য যুক্ত করবে তাই মনে করছেন সুইডিশ মিউজিয়াম এর অধ্যাপক স্টেফান বেঙ্গস্টন।

আরও পড়ুন: মঙ্গলকে মানুষের বাসযোগ্য করার পরিকল্পনায় নাসার বিজ্ঞানীরা

তিনি জানান, “যে সময়ের থেকে পৃথিবীতে প্রাণের অস্তিত্ব শুরু হয়েছিল বলে আমরা ভেবেছিলাম, তার অনেক আগেই আসলে পৃথিবীতে প্রাণের অস্তিত্ব শুরু হয়েছিল”। কিন্তু ওই জীবাশ্মকে পরীক্ষা করার জন্য কোন DNA পাওয়া যায়নি। কিন্ত জীবাশ্মটিকে দেখে মনে করা হচ্ছে যে সেটি লাল শেওলাই ছিল। মধ্য ভারতের চিত্রকূটে প্রাচীন একপাথরের গায় মিলেছে এই জীবাশ্ম।

#Scientists in India have uncovered a pair of 1.6 billion-year-old fossils that appear to contain red algae, which may be the oldest plant-like life discovered

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.