নয়াদিল্লি: ফের পাকিস্তানের বিরুদ্ধে সুর চড়াল ভারত। আন্তর্জাতিক মঞ্চে পাকিস্তান কাশ্মীর নিয়ে নাটক করে বলে অভিযোগ জানায় ভায়ত। মঙ্গলবার রাষ্ট্রসংঘে ভারতের স্থায়ী প্রতিনিধি টি এস তিরুমূর্তি নিউ ইয়র্কে জানান, কাশ্মীর নিয়ে পাকিস্তান মিথ্যে কথার দলিল বা জসিয়ার অফ লাইস পেশ করেছে।

রাষ্ট্রসংঘের সেক্রেটারি জেনারেল অ্যান্টোনিও গুটারেসের উপস্থিতিতেই এই অভিযোগ করে ভারত। এদিন তিরুমূর্তি জানান, ভুয়ো কান্না কেঁদে সমবেদনা আদায়ের চেষ্টা করছে পাকিস্তান। সন্ত্রাসের ভিত্তিভূমি হয়ে ওঠার পারেও পাকিস্তান কীভাবে এত মিথ্যে তথ্য পেশ করতে পারে, তা ভাবনার বিষয় বলে এদিন জানান ভারতের স্থায়ী প্রতিনিধি।

তিরুমূর্তি বলেন কাশ্মীরে একের পর এক হামলা চালিয়ে অশান্তি সৃষ্টির চেষ্টা করে চলেছে পাকিস্তান। সেই দেশই আবার ভারতের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসের অভিযোগ আনছে। গোটা বিষয়টাই হাস্যকর। উল্লেখ্য মঙ্গলবার গুটারেসের কাছে পাকিস্তান ভারতের বিরুদ্ধে সন্ত্রাস চালানোর অভিযোগ জানায়। তারই প্রেক্ষিতে এদিন ইসলামাবাদকে তুলোধনা করে নয়াদিল্লি।

২০২১ সালের পয়লা জানুয়ারি থেকে ভারত রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে যোগ দিচ্ছে। দু বছরের মেয়াদে ১৫ সদস্যের এই পরিষদে ভারতের যোগ দেওয়াটা স্বাভাবিকভাবেই হজম করতে পারছে না পাকিস্তান। এরপরেই নাকি কান্না শুরু হয়েছে তাদের বলে দাবি তিরুমূর্তির।

রাষ্ট্রসংঘে ভারতের স্থায়ী প্রতিনিধি টি এস তিরুমূর্তি৷

এর আগে, বিশ্বের তাবড় রাষ্ট্রের সামনে কাশ্মীরে কীভাবে পাকিস্তান সন্ত্রাস ছড়াচ্ছে, তার ব্যাখ্যা দেয় ভারত। ভারতের বিদেশ সচিব হর্ষ বর্ধন শ্রিংগলা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া, ফ্রান্স ও জাপানের সামনে পাকিস্তানের মুখোশ খোলেন। তিনি জানান, একের পর এক ঘটনায় উপত্যকায় অশান্তি ছড়াতে চাইছে পাকিস্তান। ভারতীয় সেনারা সেই হামলার কড়া জবাব দিয়ে চলেছে।

উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে কাশ্মীরে অশান্তি তৈরি করছে পাকিস্তান বলে জানিয়েছে এদিন ভারত বলে সন্ত্রাসের পিছনে যে পাক হাত রয়েছে, তার জোরালো প্রমাণ ভারত একাধিকবার দিয়েছে। ১৯শে নভেম্বর নাগরোটায় পাক নাশকতা বানচাল করে ভারতীয় সেনা। ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার হয়েছে একাধিক অস্ত্রশস্ত্র, যার সঙ্গে পাক যোগ স্পষ্ট।

এদিন শ্রিংগলা বলেন জম্মু কাশ্মীরে স্থানীয় যোগাযোগ কাজে লাগিয়ে নাশকতা চালাচ্ছে পাকিস্তান। জঙ্গিদের অনুপ্রবেশ ঘটানো হচ্ছে। সাম্বা সেক্টরে উদ্ধার হয়েছে ১৫০ ফুট টানেল, যা জঙ্গিদের অনুপ্রবেশের জন্য ব্যবহার করা হত বলে অনুমান। কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের রাজনৈতিক স্থিরতা নষ্ট করার জন্য সক্রিয় হয়ে উঠেছে পাক মদতপুষ্ট জঙ্গিরা বলে অভিযোগ করেন ভারতের বিদেশ সচিব।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।