নয়াদিল্লি: চিন ভারত সম্পর্কের জের এবারে এসে পড়ল ফুড ডেলিভারি সংস্থা জোমাটোতে। জানা গিয়েছে এই সংস্থাতে বন্ধ হল চিনা আর্থিক অনুদান। দিল্লির নয়া বিদেশি বিনিয়োগ নীতি মেনেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এর আগেই ৫৯ টি চিনা অ্যাপ ব্যান করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল ভারত সরকারের পক্ষ থেকে , আর এবারে এই সিদ্ধান্ত নেওয়াতে ফের প্রশ্নের মুখে চিন ভারত সম্পর্ক।

ভারতে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে একাধিক চিনা সংস্থা যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিয়েছিল। প্রযুক্তি থেকে শুরু করে একাধিক ক্ষেত্রে চিন বিনিয়োগ করেছিল। কিন্তু গালওয়ানে ভারত চিন সংঘর্ষের পর থেকেই ক্রমেই চিনের বিরুদ্ধে কঠোর মনোভাব নিতে থাকে ভারত। একাধিক ক্ষেত্রে যাতে চিনকে কোণঠাসা করা যায় সেই বিষয়ে বেশ কিছু পরিকল্পনা শুরু করে। আর সেই কারণেই প্রায় ৫৯ টি চিনা অ্যাপ ব্যান করা হয় বলে দাবি, যদিও ভারতের তরফে বলা হয় সুরক্ষার কারণেই এই সিদ্ধান্ত।

ভারতের তরফ থেকে এহেন ডিজিটাল আক্রমণে কার্যত থমকে যায় চিন। যদিও চিনা অ্যাপ টিকটকের তরফে জানানো হয়েছে তাদের কাছে ভারতীয় ব্যবহারকারীদের নিরাপত্তা ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ। তারা কোনভাবেই কোন ভারতীয় নাগরিকের তথ্য কেউকে দেয় নি। এমনকি চিনকেও না।

কিছুদিন আগেই কলকাতার জোমাটো কর্মীরা নিজেদের টি শার্ট জ্বালিয়ে চিনা বিনিয়োগের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়েছিল। পাশপাশি একাধিক কেন্দ্রীয় মন্ত্রীও দেশে চিনা বিনিয়োগ নিয়ে মুখ খুলেছিলেন। কার্যত চিনা বিরোধী মনোভাব গালওয়ান ঘটনার পর থেকেই যথেষ্ট সক্রিয় হয়ে ওঠে। আর সেই কারণেই এবারে জোমাটোতে বন্ধ হল চিনা বিনিয়োগ।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ