নয়াদিল্লি: বিশ্বের মাত্র কয়েকটি দেশ আছে যারা মাটি, জল ও আকাশ থেকে পারমাণবিক অস্ত্র নিক্ষেপ করতে পারে। এবার সেই তালিকায় ঢুকে পড়ল ভারত। কারণ ভারতীয় নৌবাহিনীতে যুক্ত হল আইএনএস আরিহন্ত। এটি ভারতের প্রথম দেশে তৈরি সাবমেরিন।

পড়ুন আরও- চিনের বিরুদ্ধে লড়তে আরও দ্বিগুণ শক্তিশালী করা হচ্ছে ব্রহ্মস মিসাইল

কোনও দেশ থেকে পারমাণবিক অস্ত্র ছোঁড়া হলে, তার প্রত্যুত্তর দিতে সক্ষম এই রণতরী। আরও দুটি নিউক্লিয়ার সাবমেরিনও তৈরি হচ্ছে ভারতে। অ্যাডভান্সড টেকনোলজি ভেসেল প্রোগ্রামের আওতায় তৈরি করা হচ্ছে এইসব রণতরী। ২০০৯ সালে এই উদ্যোগ নেন তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং। দ্বিতীয় রণতরীটি তৈরি হবে ২০১৮ সালে। ভারত ছাড়া আর পাঁচটি দেশে তৈরি হয়ে এই পরমাণু অস্ত্রসম্পন্ন সাবমেরিন, দেশগুলি হল- আমেরিকা, ব্রিটেন, ফ্রান্স, রাশিয়া ও চিন।

কি আছে আইএনএস আরিহন্তে?
navy

  • এই সাবমেরিনে রয়েছে ৮৩ মেগাওয়াটের লাইট-ওয়াটার রিঅ্যাকটর
  • চলতি বছরের অগাস্টে এই রণতরী উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। আগামী বছরের ফেব্রুয়ারি থেকে কাজ করবে এটি
  • এটি একটি SSBN(শিপ সাবমার্সিবল ব্যালিস্টিক নিউক্লিয়ার) ক্লাসের রণতরী। এটি সমুদ্রের গভীরে দীর্ঘদিন লুকিয়ে থাকতে পারে। একে চিহ্নিত করতে পারবে না শত্রুপক্ষ। পাশাপাশি পরমাণু অস্ত্র বহন করতে পারবে।
  • এই রণতরীতে থাকবে চারটি K-4 ব্যালিস্টিক মিসাইল, ১২টি শর্ট রেঞ্জের K-15 মিসাইল।  K-4 ব্যালিস্টিক মিসাইলে থাকবে নিউক্লিয়ার ওয়ারহেড
  • এটি ভারতকে ‘সেকেন্ড স্ট্রাইক’ করার অর্থাৎ শত্রুপক্ষ নিউক্লিয়ার অ্যাটাক করলে তার প্রত্যুত্তর দেওয়ার ক্ষমতা দিল।