নয়াদিল্লি : ট্রাম্পের করোনা সারিয়ে দেওয়া ওষুধকে ভারতে ব্যান করল। ভারত আর বাইরে থেকে নেবে না ট্রাম্পের তারিফ করা এই ওষুধ। ট্রাম্প সম্ভবত চেয়েছিলেন তাঁর ওই বক্তব্যের পরেই বিশ্ববাজারে ওই ওষুধের চাহিদা বাড়বে। ভারতের বাজার সবার আগে ধরার সম্ভাবনা ছিল। কিন্তু যেহেতু দেখা যাচ্ছে হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন নামে ওই ওষুধ করোনাকে ঠেকাতে বিশাল বড় কিছু ভূমিকা নিচ্ছে না, সম্ভবত তাই এই ওষুধ আর না নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারত।

তবে এটাও জানা যাচ্ছে যে, হাইড্রক্সিক্লোরোকুইনের যে সব চুক্তি আগেই করা হয়েছে সেই চুক্তি সম্পূর্ণ করা হবে। বুধবার ভারতের বৈদেশিক বানিজ্য দফতরের তরফে জানানো হয়েছে যে, কিছু বিশেষ বিশেষ ক্ষেত্রে কোনও প্রয়োজন হলে তখন মানবিক ক্ষেত্রে ওই ওষুধ ব্যাবহার করা যেতে পারে। এর বাইরে ওই ওষুধ ব্যাবহার করবে না ভারত। প্রসঙ্গত ভারতে কিন্তু ওষুধ তৈরি ও ওষুধ তৈরির জিনিষের কারখানা রয়েছে। তাই তেমন প্রয়োজন হলে বা প্রমাণিত হলে ওই ওষুধ তৈরি করতে পারবে ভারত। এমনটাই আশা করছে বৈদেশিক বানিজ্য দফতর। এই কারনেও সম্ভবত এই নিষেধাজ্ঞা।

এদিকে দেখা যাচ্ছে যে ট্রাম্প যেদিন থেকে হাইড্রক্সিক্লোরোকুইনকে ‘গেম চেঞ্জার’ বলে উল্লেখ করেছেন সেদিন থেকেই আমেরিকার সমস্ত হাসপাতালে এই ওষুধকে স্টক করা শুরু হয়ে যায়। চীন , ইউরোপ ও দক্ষিণ কোরিয়া এই ওষুধকে বিভিন্ন করোনা আক্রান্তের উপর ইতিমধ্যেই প্রয়োগ করে দেখেছে। ভারতও স্বাস্থ্যকর্মীদের এই ওষুধ প্রত্যহ ব্যাবহারের নির্দেশ দিয়েছিল। ঠিক এমন সময়েই আর এই ওষুধ বাইরে থেকে নেওয়া হবে না বলে জানানো হল বৈদেশিক বানিজ্য দফতরের তরফে

পপ্রশ্ন অনেক: নবম পর্ব

Tree-bute: আমফানের তাণ্ডবের পর কলকাতা শহরে শতাধিক গাছ বাঁচাল যারা