ঢাকা: ভারতে রামমন্দির ভূমি পূজা অনুষ্ঠানের পর প্রথম কূটনৈতিক বার্তা দিল বাংলাদেশ। বিদেশমন্ত্রী ড . একে আব্দুল মোমেন বলেছেন,ভারতের সঙ্গে আমাদের রক্তের সম্পর্ক। আর চিনের সঙ্গে আমাদের অর্থনৈতিক সম্পর্ক। ভারত-চিনের গন্ডগোল নিয়ে আমরা উদ্বিগ্ন নই। ভারতে রাম মন্দিরের পূজা অনুষ্ঠানের আগে ঢাকা বার্তা দিয়েছিল নয়াদিল্লিকে।

বাংলাদেশের বিদেশমন্ত্রী বলেছিলেন, রামমন্দির নিয়ে দু’দেশের সম্পর্ক খারাপ হতে দেবে না ঢাকা। কিন্তু ভারতেরও এমন কিছু করার অনুমতি দেওয়া উচিত নয়, যাতে আমাদের সুন্দর ও গভীর সম্পর্কে আঘাত লাগে। দ্য হিন্দু পত্রিকায় তাঁর এই মন্তব্য প্রকাশিত হয়। এর পর ভারতের বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র অনুরাগ শ্রীবাস্তব বলেন,পরস্পরের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে দুই দেশই সম্পর্ককে আরো ভালো করার চেষ্টা করবে।

শনিবার কুষ্টিয়ার মেহেরপুরের ঐতিহাসিক মুজিবনগর পরিদর্শন করে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জাবাবে বিদেশমন্ত্রী বলেন চিন সরকার বাংলাদেশকে করোনার ভ্যাকসিন দেবে। তারা প্রায় ৮ হাজার বেশি পণ্যের শুল্কমুক্ত সুবিধা বাংলাদেশকে দিয়েছে। এটা নিয়ে ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের সম্পর্কে কোনও বিতর্ক তৈরি হয়নি। কেউ কেউ রাজনীতি করার চেষ্টা করছে।

তিনি আরও বলেন, ভারতের সঙ্গে সুমদ্র, সীমান্ত, নিরাপত্তা সহ আমাদের বড় ধরণের সব সমস্যা দূর হয়েছে। ছোট ছোট কিছু সমস্যা ঝুলে আছে, ঠিক হয়ে যাবে। মনে রাখবেন আগামী বছর আমরা ভারতকে নিয়ে ৫০ বছর পূর্তি উৎসব করবো। কেননা আমাদের বিজয় মানে ভারতের বিজয়।

আবার ভারতের বিজয় মানে আমাদের বিজয়। এই মেহেরপুরেই ১৯৭১ সালে পাক সেনার বিরুদ্ধে মুক্তিযুদ্ধের সময় অস্থায়ী স্বাধীন মুজিবনগর সরকার প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। পরবর্তীতে সেই সরকার কলকাতা থেকে পরিচালিত হতো। মুক্তিযুদ্ধের পর বাংলাদেশ স্বাধীন হয়। তৈরি হয় গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার।

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও