স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা : শহরে প্রত্যেক দিন জন্ম হচ্ছে নতুন ছবি তৈরির স্বপ্ন।নতুন ভাবে গল্প বলার চেষ্টা করছেন অনেকে। ছবি তৈরি হচ্ছে। কিন্তু সুযোগের অভাব। ইউ টিউবে নতুন পরিচালকের ছবি দিয়েও সেই মঞ্চ খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। সুযোগ করে দিতে চাইছে ওম শস্ত্রী ফিল্মস। আয়োজন করছে ইন্দো-বাংলাদেশ ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল।

সংস্থার আহ্বায়ক আদিত্য দাস জানিয়েছেন, ‘গত তিন বছর ধরে আমরা নতুন শর্ট ফিল্ম নির্মাতাদের সুযোগ করে দিচ্ছি ফিল্ম ফেস্টিভ্যালের মাধ্যমে। আসলে আমরা সেই প্ল্যাটফর্মটা দিতে চেষ্টা করি যেটা কলকাতা থেকে দূরে থাকা শর্ট ফিল্মের পরিচালকরা পায় না।’ বারাসতের এই সংস্থা তাদের এই উদ্যোগে পেয়েছে বাংলাদেশকেও। ইতিমধ্যেই জমা পড়েছে ৪২টি ছবি। তার মধ্যে স্ক্রিনিং হবে ২২টি ছবি। আদিত্য বলেন, ‘দুটি ছবি বাংলাদেশ থেকে এসেছে। একটি ছবি অস্ট্রেলিয়া থেকেও। বাকি ১৯টি ছবি পশ্চিমবঙ্গের।

এর মধ্যে ওড়িয়া ভাষায় একটি শর্ট ফিল্ম রয়েছে ভারতীয় ছবির এই তালিকায়। ‘ আগামী ২৫ ও ২৬ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে ২ দিন ব্যাপী এই উৎসব। নির্বাচিত ছবিগুলি বারাসতের বিদ্যাসাগর সভাঘরে প্রদর্শিত হবে। এদিকে রবিবার থেকে শুরু হয়ে গিয়েছে কলকাতা শিশু চলচ্চিত্র উৎসব। একশো-টির বেশি ছবি দেখানো হবে কলকাতা শিশু চলচ্চিত্র উৎসবে। ছোটদের ছবির এই উৎসব চলবে টানা আট দিন। এখানেও এসেছে বাংলাদেশ থেকে ছবি। পাশাপাশি জার্মানি, মিশর সহ আরও অন্যান্য দেশের ছবি বাছাই করে নিয়ে আসা হয়েছে। নন্দন ১, নন্দন ২ ও নন্দন ৩, রবীন্দ্র সদন, শিশির মঞ্চ, চলচ্চিত্র শতবর্ষ ভবন, অহীন্দ্র মঞ্চ, রবীন্দ্র ওকাকুরা ভবন, রবীন্দ্র তীর্থ ও স্টার থিয়েটারে দেখানো হবে ছবি।

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও