নয়াদিল্লি: মোহালিতে অজিদের ব্যাটিং দাপট প্রান্তবন্ত করেছে কোটলার লড়াইকে৷ বুধবার ফিরোজ শাহ কোটলায় অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে সিরিজের শেষ ম্যাচ খেলতে নামছে কোহলি অ্যান্ড কোং৷

পরিসংখ্যান বলছে, ০-২ পিছিয়ে থেকে কোনও দিন ওয়ান ডে সিরিজ জেতেনি অস্ট্রেলিয়া৷ কিন্তু মোহালিতে ফিঞ্চবাহিনীর ৩৫৮ রান তাড়া করে ম্যাচ জয় চাপে রেখেছে বিরাটবিগ্রেডকে৷ সিরিজের প্রথম দু’টি ম্যাচ জিতে অজিদের হোয়াইটওয়াশের স্বপ্ন দেখেছিল কোহলিরা৷ কিন্তু পরের দু’টি ম্যাচ জিতে সিরিজে স্বপ্নের প্রত্যাবর্তন ঘটায় বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা৷

বিশ্বকাপের আগে কোটলার ম্যাচই দেশের জার্সিতে বিরাটদের শেষ ম্যাচ৷ স্বাভাবিকভাবে অতিরিক্ত চাপে থাকবে কোহলিবিগ্রেড৷ চলতি বছরেই অস্ট্রেলিয়ায় গিয়ে বিশ্বচ্যাম্পিয়দের বিরুদ্ধে ওয়ান ডে সিরিজ জিতে এসেছে বিরাটের ভারত৷ কোহলির নেতৃত্বেই অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে প্রথমবার দ্বি-পাক্ষিক ওয়ান ডে সিরিজ জেতে টিম ইন্ডিয়া৷ সুতরাং বিশ্বকাপের ঠিক আগে ঘরের মাঠে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে এই সিরিজ বিরাটদের কাছে অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ৷ ২-০ এগিয়ে থেকেও সিরিজ হারলে বিশ্বকাপের আগে ধাক্কা খাবে বিরাটদের প্রস্তুতি৷

সিরিজের প্রথম দু’টি ম্যাচ জিতলেও রাঁচি ও মোহালিতে অ্যারন ফিঞ্চদের সামনে আত্মসমর্পণ করে বিরাটবাহিনী৷ মোহালিতে দলের বেশ কয়েকটি পরিবর্তন করে ভারত৷ সিরিজের শেষ দু’টি ম্যাচে ধোনিকে বিশ্রাম দেন নির্বাচকরা৷ ফলে উইকেটের পিছনে গ্লাভস হাতে দেখা যাায় ঋষভ পন্তকে৷ কিন্তু তাঁর জঘন্য উইকেটকিপিং প্রশ্নের মুখে পড়ে৷ এছাড়াও রবীন্দ্র জাদেজাকে বসিয়ে কুলদীপ যাদবের সঙ্গে যুবেন্দ্র চাহালকে খেলায় ভারতীয় থিঙ্কট্যাঙ্ক৷

কিন্তু ভারতীয় বোলারদের বিরুদ্ধে পিটিয়ে ৩৫৮ রান তাড়া করে ম্যাচ জিততে বিশেষ বেগ পেতে হয়নি অজিদের৷ পিটার হ্যান্ডকম্বসের দুরন্ত সেঞ্চুরি এবং উসমান খোয়াজা ও অ্যাশলে টার্নারের দুর্দান্ত হাফ-সেঞ্চুরিতে ভর করে মোহালিতে চতুর্থ ম্যাচ জিতে সিরিজে সমতা ফেরায় অস্ট্রেলিয়া৷ কোটলায় তাই ‘কাঁটে কি টক্কর’-এর আশঙ্কা করছে ভারতীয় সমর্থকরা৷

মোহালিতে ভারতের হারের জন্য জঘন্য বোলিং ও খারাপ ফিল্ডিংকে দায়ি করেছেন ক্যাপ্টেন কোহলি৷ মোহালিতে ম্যাচ হেরে কোহলি বলেন, ‘দিল্লির ম্যাচ উত্তেজক হয়ে গেল৷ শেষ দু’টি ম্যাচ আমাদের চোখ খুলে দিয়েছে৷ সুতরাং কোনও কিছুই গ্র্যান্টেড নয়৷ সিরিজ জিততে পরের ম্যাচে আমাদের আরও পরিশ্রম করতে হবে এবং প্যাশনের সঙ্গে খেলতে হবে৷’

মোহালিতে ধাওয়ান ধামাকাতেও জয় আসেনি৷ রোহিত-ধাওয়ানের ১৯৩ রানের ওপেনিং পার্টনারশিপ অস্ট্রেলিয়াকে ম্যাচের শুরুতেই ব্যাকফুটে ঠেলে দিয়েছিল ভারত৷ অল্পের জন্য রোহিত শতরান হাতছাড়া করলেও দুরন্ত সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে ফর্মে ফেরেন ধাওয়ান৷ ১৪৩ রানের মেগা ইনিংস খেলেন গব্বর৷ ১১৫ বলের ইনিংসে ১৮টি বাউন্ডারি ও তিনটি ছক্কা হাঁকিয়েছেন তিনি৷ ওয়ান ডে কেরিয়ারে এটিই ধাওয়ানের সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত ইনিংস৷ আর ৭টি চার ও দুই ছক্কায় ৯২ বলে ৯৫ রান করে আউট হন হিটম্যান৷