ঢাকা: যদি কোনও বাংলাদেশি অবৈধভাবে ভারতে বসবাস করে, তাহলে তাদের তালিকা দিন। দিল্লিকে সেই তালিকা দিতে বলা হল বাংলাদেশের তরফে।

কয়েকদিন আগেই বাংলাদেশের বিদেশমন্ত্রী ভারত সফর বাতিল হয়। যদিও তিনি নিজের ব্যস্ততার কারণ দেখিয়েছেন, কিন্তু নাগরিকত্ব বিল পাশের আবহেই সেই সফর বাতিল হয় বলে অনুমান করা হয়। সেই বিদেশমন্ত্রী একে আব্দুল মোমেনই এই তালিকার কথা বলেন। সেইসঙ্গে তিনি এও জানান যে, ভারত-বাংলাদেশের সম্পর্কে কোনও অবনতি হয়নি।

তাঁর ভারত সফর বাতিল হওয়া নিয়ে প্রশ্ন করা হলে, মোমেন জানিয়েছেন, ব্যস্ততার কারণেই বৃহস্পতিবারের ভারত সফর তিনি বাতিল করেছেন। তিনি বলেছেন বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের সম্পর্ক স্বাভাবিক এবং মধুর। এই সম্পর্কে কোনও প্রভাব পড়বে না। তাঁর কথায়, ‘এনআরসি ভারতের অভ্যন্তরীণ ব্যাপার। এতে বাংলাদেশের ওপর কোনও প্রভাব পড়বে না। জানিয়েছেন তিনি।

তিনি আরও বলেন, অর্থনৈতিক কারণে কিছু ভারতীয় অবৈধ উপায়ে মিডলম্যান ধরে বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে। তবে সেদেশের নাগরিক ব্যতীত যদি অন্য কেউ বাংলাদেশে প্রবেশ করে, তাহলে তাদের ফেরত পাঠানো হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। তিনি উল্লেখ করেন , যদি কেউ থেকে থাকে। বাংলাদেশি নাগরিকদের সেদেশে ফিরিয়ে নেওয়া হবে। কেননা নিজের দেশে ফেরার অধিকার তাদের রয়েছে।

ব্যস্ততার কারণে সফর বাতিল কেন ভারত সফর বাতিল, তারও উত্তর দিয়েছেন বাংলাদেশের বিদেশমন্ত্রী। তিনি বলেছেন, ভারত সফরের সঙ্গেই পড়ে গিয়েছে, বিজয় দিবস। এছাড়াও বিদেশ প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম এবং সচিব দেশে নেই। সেই জন্যই সফর পিছিয়ে দিয়েছেন তিনি।