বেঙ্গালুরু: বিশাখাপত্তনমে সিরিজের প্রথম টি-২০ ম্যাচে শেষ বলের থ্রিলারে অস্ট্রেলিয়ার কাছে হারতে হয়েছিল ভারতকে৷ যদিও ভাইজ্যাগে হাতে মাত্র ১২৬ রানের পুঁজি নিয়ে লড়াই চালিয়েছিল টিম ইন্ডিয়া৷ প্রথম ম্যাচের মতো চিন্নাস্বামীতেও টসে হেরে প্রথমে ব্যাট করতে বাধ্য হয় ভারত৷ তবে বিরাট কোহলি, লোকেশ রাহুল ও মহেন্দ্র সিং ধোনির মিলিত প্রচেষ্টায় অস্ট্রেলিয়ার সামনে বড় রানের লক্ষ্য ঝুলিয়ে দেয় ‘মেন ইন ব্লু’রা৷

ভারত অধিনায়কের দুরন্ত হাফসেঞ্চুরি ও লোকেশ-ধোনির যথাযথ সঙ্গতে ভর করে ভারত নির্ধারিত ২০ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে ১৯০ রান তোলে৷ অর্থাৎ জয়ের জন্য অস্ট্রেলিয়াকে তুলতে হবে ২০ ওভারে ১৯১ রান৷

আরও পড়ুন: বিশ্বকাপে বিসিসিআইয়ের নিরাপত্তা সংক্রান্ত দাবি মেনে নিল আইসিসি

ভারত এই ম্যাচে বিশ্রাম দেয় ওপেনার রোহিত শর্মাকে৷ বদলে প্রথম ম্যাচে রিজার্ভ বেঞ্চে থাকা শিখর ধাওয়ানকে সুযোগ দেওয়া হয়৷ ধাওয়ানের সঙ্গে ওপেন করতে নেমে লোকেশ রাহুল আরও একবার বড় রানের ইনিংস গড়েন৷ তবে ব্যক্তিগত হাফসেঞ্চুরির দোরগোড়া থেকে ফিরতে হয় তাঁকে৷ ৩টি চার ও ৪টি ছক্কার সাহায্যে ২৬ বলে ৪৭ রান করে আউট হন রাহুল৷

ধাওয়ানের আউট নিয়ে বিতর্কের অবকাশ থেকেই যায়৷ স্টোইনিস যথাযথভাবে ক্যাচ ধরেছিলেন কি না তা নিয়ে তৃতীয় আম্পায়ারের সিদ্ধান্তও ভারতীয় সমর্থকদের খুশি করতে পারবে কি না সন্দেহ৷ কেননা, টেলিভিশন রিপ্লে দেখে মনে হচ্ছিল বুঝি বল স্টোইনিসের হাতে ধরা পড়ার আগে মাটি ছুঁয়েছিল৷ ধাওয়ান ২৪ বলে ১৪ রান করে আউট হন৷

আরও পড়ুন: আইপিএলের আগে বিধ্বংসী ঋদ্ধি

ঋষভ পন্ত আরও একবার ব্যর্থ হন৷ ৬ বলে মাত্র ১ রান করে আউট হন তিনি৷ কোহলির সঙ্গে জুটি বেঁধে ধোনি চতুর্থ উইকেটে ১০০ রান যোগ করেন৷ শেষে ৩টি চার ও ৩টি ছক্কার সাহায্যে ২৩ বলে ৪০ রান করে আউট হন ধোনি৷

কোহলি টি-২০ কেরিয়ারের ২০তম হাফসেঞ্চুরি করেন চিন্নাস্বামীতে৷ ২টি চার ও ৬টি ছক্কার সাহায্যে ৩৮ বলে ৭২ রান করে আপরাজিত থাকেন ভারত অধিনায়ক৷ দীনেশ কার্তিক নটআউট থাকেন ৩ বলে ৮ রান করে৷