সুভাষ বৈদ্য, কলকাতা: মুখ্যমন্ত্রীর হস্তক্ষেপে সমস্যার সমাধান৷ রাজ্যে আইসিটি কম্পিউটার শিক্ষকদের চাকরির মেয়াদ বৃদ্ধি৷ প্রায় ৬৫০০ আইসিটি কম্পিউটার শিক্ষক রাজ্যের বিভিন্ন স্কুলে অস্থায়ী শিক্ষক হিসেবে শিক্ষকতা করছেন৷ তাদের মঝ্যে প্রথম ধাপে প্রথম ও দ্বিতীয় ফেজের শিক্ষকদের চাকরির মেয়াদ বৃদ্ধি করা হল৷ বাকিদেরও পর্যায়ক্রমে মেয়াদ বৃদ্ধি করা হবে বলে শিক্ষা দফতর সূত্রে খবর৷

রাজ্যের বিভিন্ন স্কুলে দীর্ঘদিন ধরে স্বল্প বেতনে শিক্ষকতা করে আসছেন আইসিটি কম্পিউটার শিক্ষকরা৷ তার মধ্যে একটি ফেজের কয়েকশত শিক্ষকদের চাকরির মেয়াদ শেষ হয়ে গিয়েছে ২০১৮ ডিসেম্বর মাসে৷ তারপর তাদের মেয়াদ বৃদ্ধি নিয়ে ধোঁয়াশা দেখা দেয়৷ ফলে চাকরি হারানোর আশঙ্কায় দিন কাটছিল কয়েক হাজার আইসিটি কম্পিউটার শিক্ষকদের৷ অবশেষে স্কুল শিক্ষা দফতর থেকে মিলল ছাড়পত্র৷ প্রথম ও দ্বিতীয় ফেজের প্রায় দু’হাজার শিক্ষকদের চাকরির মেয়াদ বৃদ্ধি করা হল৷

আরও পড়ুন : অভিজাত এলাকায় দেহব্যবসা, হাতেনাতে ধরা পড়ল ৬

ওয়েস্ট বেঙ্গল আইসিটি স্কুল কোডিনেটর ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের রাজ্য সভাপতি স্বরূপ পান জানান, রাজ্যের সরকারি ও বেসরকারি স্কুলে প্রায় ৬৫০০ আইসিটি কম্পিউটার শিক্ষক শিক্ষকতা করছেন৷ আইএলএফ এন্ড এস নিয়োগকারী সংস্থার মাধ্যমে সরকারি ও বেসরকারি স্কুলগুলিতে কম্পিউটার শিক্ষাদানের জন্য নিয়োগ করা হয় আইসিটি কর্মীদের৷ আইসিটি স্কুল প্রোজেক্টে অস্থায়ী শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ করা হয়৷ ২০১৮ সালের ডিসেম্বর মাসে একটি ফেজের শিক্ষকদের চাকরির মেয়াদ শেষ হয়ে যায়৷ চাকরির মেয়াদ বৃদ্ধি না হওয়ায় আমরা আন্দোলনে নামতে বাধ্য হই৷

সোমবার সকালে কয়েক হাজার আইসিটি কম্পিউটার শিক্ষক মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়ির অদূরে অবস্থান বিক্ষোভে বসেন৷ এরপর পুলিশের অনুরোধে তারা কালীঘাট দমকল কেন্দ্রের কাছে এসে অবস্থান বিক্ষোভ শুরু করেন৷ অ্যাসোসিয়েশনের রাজ্য সভাপতি জানান, বিগত সাত বছরে আইসিটি কম্পিউটার শিক্ষকদের তেমন বেতন বাড়েনি৷ তাই বেতন বৃদ্ধিসহ একাধিক দাবিতে এই অবস্থান বিক্ষোভ৷ বেতন বৃদ্ধি ছাড়াও আমাদের আরও দাবিগুলোর মধ্যে রয়েছে, অস্থায়ী শিক্ষকদের জন্য একটি স্থায়ী পদ তৈরি করা, অবিলম্বে চাকরির মেয়াদ বৃদ্ধি করা, কম্পিউটার কে স্কুলের সিলেবাসে অন্তর্ভুক্ত করা৷

আরও পড়ুন : ক্যান্সারকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে জীবনযুদ্ধে জয়ী ইমরানের ছেলে

তিনি আরও জানান,এর আগেও নবান্ন থেকে শুরু করে বিকাশ ভবন সব জায়গাতেই দরবার করেছি৷ এমনকী শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বাড়ির সামনেও ধরনায় বসেছিলাম৷ এদিন ওয়েস্ট বেঙ্গল আইসিটি স্কুল কোডিনেটর ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের একটি প্রতিনিধি দল মুখ্যমন্ত্রীর বাড়িতে যায়৷ সেখানে মুখ্যমন্ত্রীর পিএ শুভ্র শঙ্খ বাবুর প্রতিনিধি দলের সাথে দেখা করেন৷ তিঁনি প্রিন্সিপাল সেক্রেটারি মনীষ জৈনের সাথে ফোনে কথা বলেন৷ এরপরই প্রতিনিধি দলকে জানিয়ে দেওয়া হয় যে, দু’টি ফেজের আইসিটি কম্পিউটার শিক্ষকদের চাকরির মেয়াদ বৃদ্ধি করা হল৷