নয়াদিল্লি: একের পর এক ধর্ষণ। চুপ থাকতে পারলেন না তিনি। এর আগেও একাধিকবার বিভিন্ন ঘটনার প্রেক্ষিতে মুখ খুলেছেন তিনি। এবার ধর্ষণ নিয়ে ফের মুখ খুললেন তসলিমা। তাঁর মতে, ভারতীয় উপমহাদেশে প্রতিদিনই মেয়েদের ধর্ষণ করা হচ্ছে। এরকম অবস্থা কখনওই আশা করা যায় না।

নিজের ফেসবুক দেওয়ালে তসলিমা লেখেন, “হায়দরাবাদে প্রিয়াংকা রেড্ডির গণধর্ষণ আর পুড়িয়ে মারার ঘটনা শেষ হতে না হতেই উন্নাওয়ে গণধর্ষণের পর পুড়িয়ে মারার ঘটনা, উন্নাওয়ের পর এক তরুণীকে ধর্ষণ আর পুড়িয়ে হত্যা মালদায়, মালদার পর ত্রিপুরায়, শেষ না হতেই ঢাকায় রূম্পার ধর্ষণ আর হত্যার ঘটনা। ভারতীয় উপমহাদেশে প্রতিদিনই মেয়েদের ধর্ষণ করা হচ্ছে এবং খুন করা হচ্ছে।”

এনকাউন্টার, শাস্তি, জেল– এসবের পরেও থামছেন না ধর্ষণ। তসলিমার মতে, “প্রতিদিন এসব ঘটনা শুনতে হবে, পড়তে হবে, দেখতে হবে, প্রতিদিন এই খুন ধর্ষণ নিয়ে ভাবতে হবে, প্রতিবাদ করতে হবে, চিৎকার করতে হবে, দুশ্চিন্তা করতে হবে, প্রতিদিন, প্রতিদিন, প্রতিদিন। মানুষ আর কত নিতে পারে! আমাদের জীবনে যেন শান্তি স্বস্তি বলে কিছু থাকতে নেই, আনন্দ উচ্ছ্বাস থাকতে নেই।

পুরুষের দাসত্ব করাই মেয়েদের কাজ। এ বিষয়েও মুখ খোলেন তিনি। তসলিমার ভাষায়, “একটাই জীবন! এই জীবনটা পার করে গেলাম পুরুষের আবর্জনা সাফ করতে করতে। পুরুষেরা কী সাংঘাতিক ভাবে আমাদের জীবন থেকে কেড়ে নিচ্ছে আমাদের আশা আকাঙ্ক্ষা, আমাদের বিশ্বাস, আমাদের সুখ, স্বপ্ন, আমাদের স্বাধীনতা।”

এভাবেই তিনি পুরুষতন্ত্রের বিরুদ্ধে সরব হলেন। কিন্তু এর পরেও পরিস্থিতি বদলাবে কি? মেয়েদের আর ধর্ষণের শিকার হতে হবে না তো? পরিস্থিতি পালটাবে কতটা? রাষ্ট্রের পদক্ষেপই বা কী হবে? প্রশ্ন কিন্তু থেকেই যায়।

পপ্রশ্ন অনেক: নবম পর্ব

Tree-bute: আমফানের তাণ্ডবের পর কলকাতা শহরে শতাধিক গাছ বাঁচাল যারা