স্টাফ রিপোর্টার, বাঁকুড়া: কয়েক দিনের ব্যবধানেই ফের দুঃসাহসিক চুরির ঘটনা ঘটল বাঁকুড়ায়। বাড়ির মালিকের অনুপস্থিতির সুযোগকে কাজে লাগিয়ে অবাধে লুটপাট চালাল চোরের দল। এমনকি ওই বাড়িতে ভাড়া থাকা এক ডাক বিভাগের কর্মচারীর ঘরেও একইভাবে চুরির ঘটনা ঘটেছে। ধারাবাহিকভাবে একের পর এক চুরির ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে।

চুরির ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার রাতে বাঁকুড়া জেলার বিষ্ণুপুরে। বিষ্ণুপুর শহরের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের কাদাকুলি এলাকায় এক কেন্দ্রীয় সরকারের আধিকারিকের বাড়িতে অবাধে লুটপাট চালায় চোরের দল। সূত্রের খবর, চোরেররা যখন ওই আধিকারিকের বাড়িতে চুরি করতে আসে তখন তারা কেউ বাড়ি ছিলোনা। ফলে ঘর ফাঁকা পেয়ে অবাধে লুটপাট চালিয়েছে তারা।

এদিকে চুরির ঘটনায় প্রাণকৃষ্ণ বল্লভ নামে ওই কেন্দ্রীয় সরকারী আধিকারিক বলেন, ‘কর্মসূত্রে আমি বালুরঘাটে থাকি’। ‘বাড়ির একটি অংশ বিহারের বাসিন্দা তথা এক ডাক বিভাগের কর্মীকে ভাড়া দেওয়া আছে’। তিনিও ছট পুজো উপলক্ষ্যে নিজের বাড়িতে গিয়েছিলেন। তিনি ফিরে এসে দেখেন দরজা ভাঙ্গা, বাড়ির জিনিসপত্র ছড়ানো ছিটানো। এই মুহৃর্তে ঠিক কি কি চুরি গেছে তা বুঝে উঠতে পারছেননা তাঁরা কেউই। পর পর চুরির ঘটনায় পুলিশের দায়িত্বশীল ভূমিকা নিয়েও তিনি প্রশ্ন তোলেন। তবে বিষয়টি পুলিশকে জানানো হয়েছে বলে তিনি জানান।

বুদ্ধদেব ঘোষ নামে স্থানীয় এক বাসিন্দা বলেন, ‘আমরা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি’। ধারাবাহিকভাবে এই চুরির ঘটনা রুখতে পুলিশ কোনও ইতিবাচক ভূমিকা গ্রহণ করেনি বলেও তিনি দাবী জানিয়েছেন।
অন্যদিকে, পুলিশের পক্ষ থেকে ঘটনার তদন্তের পাশাপাশি এই চুরির ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতারের আশ্বাস দেওয়া হয়েছে।