নয়াদিল্লি: রাফায়েল রায়ের পরেই সোশ্যাল মিডিয়ায় টুইট করে রাহুল গান্ধী এবং কংগ্রেসকে তীব্র আক্রমণ করেছে বিজেপি। রাফায়েল রায়ের পর রাহুল গান্ধীকে দেশবাসীর কাছে ক্ষমা চাওয়ার পরামর্শ দেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদ।

কিন্তু, এই রায়কে ‘অন্য চোখে’ দেখছেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী। বৃহস্পতিবারই টুইট করে এই রায়কে তদন্তের ক্ষেত্রে ‘নতুন পথ’ বলেই মনে করছেন তিনি। রাফায়েলের এই রায় দুর্নীতির তদন্তে নতুন রাস্তা খুলে যাবে বলেই মনে করছেন রাহুল। রাফায়েল তদন্তে যৌথ সংসদীয় কমিটি গঠনের কথাও বলেন তিনি।

রাফায়েল জেট মামলার রিট পিটিশন নিয়ে বৃহস্পতিবার কি রায় দেয় সুপ্রিম কোর্ট, তা নিয়েই তুঙ্গে ছিল জল্পনা। এ দিন রায় দিতে গিয়ে রাফায়েল মামলার পুনর্বিবেচনার আর্জি খারিজ করে দেয় সুপ্রিম কোর্ট। এর কিছুক্ষণের মধ্যেই রাহুল গান্ধী টুইট করে জানান, ‘সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি জোসেফ রাফায়েল দুর্নীতি তদন্ত মামলায় একটি বিরাট পথ খুলে দিলেন। সরকারের উচিত একটি নিরপেক্ষ তদন্ত করে তা সততার সঙ্গে তুলে ধরা। এই দুর্নীতি নিরসনে যৌথ সংসদীয় তদন্ত কমিটি গঠন করা উচিত।’

প্রসঙ্গত রাফায়েল মামলার রায়ে নিজস্ব মত তুলে ধরে বিচারপতি কে এম জোসেফই একমাত্র নিরপেক্ষ তদন্তকারি সংস্থা দ্বারা এই বিষয়টি খতিয়ে দেখার কথা বলেন। আর কার্যত এই সুরেই এ দিন টুইট করেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী।

২০১৬ সালে ২৩শে ডিসেম্বর ফরাসি বিমানসংস্থা ড্যাসল্টের থেকে ৩৬টি রাফায়েল জেট যুদ্ধবিমানের বরাত দেয় মোদী সরকার। প্রায় ৫৯ হাজার কোটি টাকার এই বরাত নিয়ে দুর্নীতির অভিযোগ তোলেন বিরোধীরা। এই বরাতের বিষয়টি স্বচ্ছভাবে তুলে ধরতে সুপ্রিমকোর্টের তত্ত্বাবধানে সিবিআই তদন্তের দাবি জানিয়েছিল কংগ্রেস-সহ বহু বিরোধী দল।

গত বছর ডিসেম্বরে রাফায়েল জেট সংক্রান্ত মামলা খারিজ করে দিয়েছিল সুপ্রিম কোর্ট। আর বৃহস্পতিবার সেই একই রায় বহাল রাখল প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ, বিচারপতি এস কে কউল, এবং বিচারপতি কে এম জোসেফের বেঞ্চ।

এই মামলার আর্জি খারিজ প্রসঙ্গে সুপ্রিম কোর্ট জানায়, ‘আমাদের এই কথা স্মরণে রাখা উচিত যে সরকারের সঙ্গে ফরাসি সংস্থার বরাত রয়েছে। আর এর আগেও বহুবার এফআইআর আর সিবিআই তদন্ত হয়েছে। এটা নতুন তদন্ত নয়।’

২০১৮ সালের ডিসেম্বরে সুপ্রিম কোর্ট জানিয়েছিল রাফালে তদন্তের প্রয়োজন নেই সেই রায়কেই পুনর্বিবেচনার আর্জি জানানো হয়। দাখিল হয় রিট পিটিশনও। এ দিনের রায়ে সেই আর্জি খারিজ করে দিল সুপ্রিম কোর্ট। সর্বোচ্চ আদালতের এই রায়ে রাফায়েল নিয়ে স্বস্তিতে কেন্দ্রীয় সরকার।