নয়াদিল্লি: ইউপিএ জমানায় সার্জিক্যাল স্ট্রাইক নিয়ে সম্প্রতি হয়েছে বিতর্ক। সম্প্রতি কংগ্রেস দাবি করে যে কংগ্রেস আমলেও সীমান্ত পেরিয়ে হামলা করেছিল ভারতীয় সেনা।

সম্প্রতি এক আরটিআই-এর জবাবে কেন্দ্র জানিয়ে দিল যে ইউপিএ জমানায় কোনও সার্জিক্যাল স্ট্রাইক হয়নি। ২০১৬-র আগে কোনোদিনই এই ধরনের হামলা হয়নি বলে জানানো হয়েছে ওই জবাবে। স্বাভাবিকভাবেই কেন্দ্রের এই জবাবে বড় ধাক্কা খেল বিরোধীরা।

জম্মুর বাসিন্দা রোহিত চৌধুরী তথ্য জানার অধিকার আইনে এই প্রশ্ন করেছিলেন। ২০০৪ থেকে ২০১৪ -র মধ্যে হওয়া সার্জিক্যাল স্ট্রাইক সম্পর্কে জানতে চান তিনি। সেই প্রশ্নের জবাবে ডিজিএমও-র মাধ্যমে প্রতিরক্ষামন্ত্রক জবাব দিয়ে জানায় যে একটাই সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের তথ্য আছে তাদের হাতে। যেটা হয়েছিল ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৬। তার আগে কোনও সার্জিক্যাল স্ট্রাইক হয়েছিল বলে জানা নেই।

সম্প্রতি এই ইস্যুতে চাঞ্চল্যকর দাবি করেন কংগ্রেস সাংসদ রাজীব শুক্লা। তিনি বলেন, “মনমোহন সিং-এর সরকার থাকাকালীন ছ’বার সার্জিক্যাল স্ট্রাইক করেছে ভারতীয় সেনা।” কবে কোথায় ভারতীয় সেনা এই সকল অভিযান চালিয়েছে সেটাও স্পষ্ট করে জানিয়েছেন তিনি।

তাঁর কথায়, “২০০৮ সালের ১৯ জুন জম্মু-কাশ্মিরের পুঞ্চের ভাট্টাল সেক্টরে, ২০১১ সালের ৩০ অগস্ট এবং ১ সেপ্টেম্বরের মধ্যে নীলম নদী উপত্যকার শারদা সেক্টরে, ২০১৩ সালের ছয় জানুয়ারি সাওয়ান পাত্র চেকপোস্টে, ২০১৩ সালের ২৭-২৮ জুলাই নাজাপির সেক্টরে, ২০১৩ সালের অগস্টে নীলম উপত্যকায় এবং ২০১৪ সালের ১৪ জানুয়ারি ইউপিএ জমানার শেষের দিকেও একটি সার্জিক্যাল স্ট্রাইক চালায় ভারতীয় সেনা।”

কংগ্রেস পরিচালিত ইউপিএ জমানাতেই মুম্বইয়ে ঘটে যায় ভয়াবহ জঙ্গি হানা। সেই হামলার পরে ভারতীয় সেনা সার্জিক্যাল স্ট্রাইক করতে চাইলেও কেন্দ্র অনুমতি দেয়নি বলে অভিযোগ করে বিজেপি। কিন্তু রাজীব শুক্লার তথ্য অনুসারে, মুম্বই হামলার আগেই সার্জিক্যাল স্ট্রাইক চালিয়েছিল ভারতীয় সেনা। কারণ ২০০৮ সালের নভেম্বর মাসে মুম্বইয়ে জঙ্গি হানা হয়। আর মনমোহন জমানায় প্রথম সার্জিক্যাল স্ট্রাইক হয় ২০০৮ সালের ১৯ জুন।

যদিও এই দাবি উড়িয়ে দেয় বিজেপি। প্রাক্তন সেনাপ্রধান ভি কে সিং বলেন, কংগ্রেসের এই দাবি সর্বৈব মিথ্যা। পাল্টা দাবি করে প্রাক্তন সেনাপ্রধান৷ জানান, মিথ্যা কথা বলা কংগ্রেসের স্বভাব৷

ভি কে সিং ট্যুইটারে কংগ্রেসের বিরুদ্ধে মিথ্যাচারের অভিযোগে সরব হন৷ লেখেন, কংগ্রেসের স্বভাব হল মিথ্যা কথা বলা৷ কাউকে ধরে এনে নতুন করে গল্প বানিয়েছে কংগ্রেস৷ প্রসঙ্গত, ২০১০ থেকে ২০১২ সাল পর্যন্ত দেশের ২৪তম সেনাপ্রধান ছিলেন ভি কে সিং৷ ট্যুইটারে স্পষ্টতই জানান, তাঁর সময় হওয়া এমন কোনও স্ট্রাইকের কথা জানা নেই৷