নয়াদিল্লি: ডিডিএলজির সেই বিখ্যাত দৃশ্যের কথা মনে আছে? যেখানে ট্রেন প্রায় মিস করেছেন কাজল, আর দরজায় ঝুঁকে তাঁকে ট্রেনে তুলতে ব্যস্ত শাহরুখ? এবার হয়ত এরকম আদ্যোপান্ত রোমান্টিক সিন স্টেশনে আর দেখা যাবে না৷ সৌজন্যে ভারতীয় রেল৷ কারণ ট্রেন ছাড়ার ২০ মিনিট আগেই সিল করে দেওয়া হবে প্ল্যাটফর্ম৷ যাতে দৌড়ে ট্রেন ধরতে না পারেন কোনও যাত্রী৷

ফলে ট্রেন ছাড়তে যদি আপনার হাতে থাকে ১৫-২০ মিনিট, তাহলে ভেবেই নিন যে আপনার ট্রেন মিস অবধারিত৷ অবাক হচ্ছেন তো? এমনই নিয়ম চালু করতে চলেছে ভারতীয় রেলমন্ত্রক৷ অনেকটা সেই বিমানবন্দরের নিয়মের ধাঁচে চালু হতে চলেছে নয়া নিয়ম৷

বলা হয়েছে যাত্রীকে ট্রেন ছাড়াপ নির্দিষ্ট সময়ের ১৫-২০ মিনিট আগেই পৌঁছে যেতে হবে স্টেশনে৷ নয়তো তারপরে আর প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না৷ সেই ২০ মিনিট ধরে যাত্রীদের সিকিওরিটি চেকিং চলবে৷ আপাতত সারা দেশে ২০২টি স্টেশনে এই নিয়ম চালুর কথা ভেবেছে রেলমন্ত্রক৷

উচ্চপ্রযুক্তির সেই সিস্টেম ইতিমধ্যেই পরীক্ষামূলক ভাবে প্রয়াগরাজ স্টেশনে বসানো হয়েছে৷ কুম্ভ মেলার আগেই এই নিয়ম চালু করা হবে এই স্টেশনে বলে জানানো হয়েছে৷ এরপরেই কর্ণাটকের হুবলি স্টেশনে এই প্রযুক্তি বসানো হবে৷ তারপর ধীরে ধীরে দেশের মোট ২০২টি স্টেশনে নিয়মের প্রয়োগ করা হবে৷ আরপিএফের ডিজি অরুণ কুমার এই তথ্যগুলি এদিন সাংবাদিকদের হাতে তুলে দেন৷

তিনি বলেন পরিকল্পনার প্রথম ধাপে প্ল্যাটফর্ম সিল করার কথা ভাবা হচ্ছে৷ যাতে ট্রেন ছাড়ার নির্ধারিত সময়ের ১৫-২০ মিনিট আগেই পৌঁছে যান স্টেশনে৷ নয়তো সিল করে দেওয়া হবে প্ল্যাটফর্ম৷ ঘিরে দেওয়া হবে আরপিএফ জওয়ান দিয়ে, নয়তো বিশেষ দেওয়াল তুলে নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হবে৷ রাখা হবে কোলাপসিবল গেটও৷

তবে একটা আশঙ্কার কথাও শুনিয়েছেন তিনি৷ আরপিএফের ডিজির মতে নিরাপত্তা খাতে প্রযুক্তির দিকে বিনিয়োগ করলে নিরাপত্তা কর্মী সংখ্যা কমানো হতে পারে৷ এই প্রযুক্তির নাম ইন্টিগ্রেটেড সিকিওরিটি সিস্টেম বা আইএসএস৷ এরমধ্যে থাকছে সিসিটিভি বসানো, বম্ব ডিটেকশান পদ্ধতির প্রয়োগ, লাগেজ স্ক্রিনিংয়ের ব্যবস্থা৷ গোটা পদ্ধতি কার্যকর করার জন্য আনুমানিক ৩৮৫.০৬ কোটি টাকা লাগবে বলে খবর৷