ভোপাল: দেশ ডিজিটাল হচ্ছে, ক্যাশলেস হওয়ার দিকে ধাপে ধাপে এগিয়ে চলেছে, অথচ এমন কিছু জায়গা আছে, যেখানে চলার সামান্য রাস্তাটুকুও নেই। অবস্থা এমন যে অসুস্থ মহিলাকে খাটে চাপিয়ে নিয়ে যেতে হয় হাসপাতালে। মধ্যপ্রদেশের অনুপ্পুর জেলা থেকে উঠে এসেছে এমনই চিত্র।

সেখানে উপায়ন্তর না পেয়ে একটি বাঁশের সঙ্গে দড়ি বেঁধে খাট ঝুলিয়ে এক অসুস্থ মহিলাকে হাসপাতালে পৌঁছে দিল পরিবারের লোকেরা। সোমবার এই নিদারুণ ঘটনার সাক্ষী থেকেছে মধ্যপ্রদেশের অনুপ্পুর জেলা।

অসুস্থ মহিলার ছেলে সোম লাল যাদব সংবাদ সংস্থা এএনআইকে জানিয়েছে, “আমার মা হার্টের রোগী। আমরা ডোংরা পঞ্চায়েত এলাকায় থাকি। এখানে কোনও রাস্তা নেই এবং বিশেষত বৃষ্টির সময়ে চলা কঠিন হয়ে পড়ে। প্রশাসনের আধিকারিকরা এসে আশ্বাস দিয়েছিলেন, একটি রাস্তা তৈরি করা হবে, তবে সমস্যার কোনও সমাধান এখনও হয়নি।”

তিনি বলেন, “আমাদের বাড়ি মেইন রোড থেকে প্রায় ২ কিমি ভেতরে। মাকে অসুস্থ দেখে আমি অ্যাম্বুলেন্সে ফোন করি, কিন্তু তাঁরা জানায় তাঁদের আসতে ২ ঘন্টা সময় লাগবে। তাই আমরা সিদ্ধান্ত নিই, আমরা নিজেরাই তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে যাব। আমাদের বাইক ছিল মেইন রোডে।

পাশাপাশি তিনি জানিয়েছেন, সেখানে ইলেক্ট্রিকেরও সমস্যা আছে।

ওই মহিলার স্বামীর বক্তব্য, “রাস্তাঘাট না থাকায় কারণে পরিবারের লোকেদেরই আমার স্ত্রীকে তিন কিলোমিটারেরও বেশি রাস্তা বহন করে নিয়ে যেতে হয়। এখানে রাস্তা না থাকায় আমরা সমস্যার মধ্যে রয়েছি। রাজনৈতিক নেতা ও প্রশাসনিক আধিকারিকরা এসেছিলেন কিন্তু কিছুই করা হয়নি।”

পঞ্চায়েত চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার ইমরান সিদ্দিকী বলেন, “সকালে এই ঘটনা সম্পর্কে জানতে পারি। কালেক্টর আমাকে গিয়ে তাঁদের দেখতে এবং ভালো ব্যবস্থা করতে বলেন। এখন অবশ্যই আমরা আমাদের টেকনিকাল অফিসার ও ইঞ্জিনিয়ারদের সঙ্গে কথা বলে তাঁদের সমস্যার সমাধান করব। “

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও