টাকা ব্যাপারটা এমন যার গুণে যে কোনও যন্ত্রণাই প্রশমিত হতে পারে। পূরণ হতে পারে যে কোনও জাগতিক স্বপ্ন। তাই টাকার প্রয়োজন সকলেরই একটা সাধারণ প্রয়োজনের মধ্যে পড়ে৷ আর এই কারণেই আজ আলোচনা করা হবে ঠিক কি উপায় আপনি অল্প সময়েই হয়ে উঠতে পারেন কোটিপতি৷ এমনকি সেই সঙ্গে যে কোনও ধরনের অর্থনৈতিক সমস্যাও মিটে যাবে চোখের পলকে। পৃথিবীর অন্যতম প্রাচীন ধর্ম, হিন্দু ধর্ম৷ আর সেই ধর্মকে অবলম্বন করে এমন কিছু দেব-দেবীর আরাধনার কথা বলা হবে যার মাধ্যমে আপনার হাতে আসবে যাদুকাঠি৷

প্রতীকী ছবি

নিয়মিত ভগবান কুবেরের আরাধনা করুন৷ শাস্ত্র মতে লর্ড কুবের হলেন ধনের দেবতা। তাই নিয়মিত কুবের দেবতার পুজো করলে যে কোনও ধরনের অর্থনৈতিক সমস্যা মিটে যেতে পারে৷ সেই সঙ্গে অনেক টাকার মালিক হয়ে ওঠা যায় চোখের পলকে। আর যদি আপনি অর্থনৈতিক সমস্যায় ভোগেন, তাহলে তো কথাই নেই! কারণ নিয়মিত সর্বশক্তিমানের পুজো করলে কর্মক্ষেত্রে চরম সফলতা পাওয়ার স্বপ্ন পূরণ হয়। শুধু তাই নয়, এমনটাও বিশ্বাস করা হয় যে এক মনে কুবের দেবের পুজো করলে আমৃত্যু কোনও ধরনের অর্থনৈতিক সমস্যা ধারে কাছে ঘেঁষতে পারবে না।

এরপর আপনি মা লক্ষ্মীর পুজো করতে পারেন৷ এমনটা বিশ্বাস করা হয় যে, যে গৃহস্থে মায়ের আগমন ঘটে, সেই পরিবারে কখনও অর্থনৈতিক সমস্যা মাথা চাড়া দিয়ে উঠতে পারে না। তাই অল্প সময়েই যদি বড়লোক হয়ে উঠতে চান, তাহলে নিয়মিত মা লক্ষ্মীর পুজো করতে ভুলবেন না যেন!

প্রসঙ্গত, শাস্ত্রে এমনটা উল্লেখ পাওয়া যায় যে ঠিক ঠিক নিয়ম মেনে যদি মা লক্ষ্মীর আরাধনা করা যায়, তাহলে যে শুধু অনেক টাকার মালিক হয়ে ওঠা যায়, তা নয়। সেই সঙ্গে কর্মক্ষেত্রে সফলতার স্বাদ পেতেও সময় লাগে না। শুধু তাই নয়, মা লক্ষ্মীর আশীর্বাদে মনোবল বাড়ে, পদন্নোতি ঘটে এবং জীবনে চলার পথে আসা যে কোনও বাঁধা সরে যেতে সময় লাগে না।

লর্ড ভেঙ্কটেশ্বর তিরুপতি, কয়েকটি প্রাচীন গ্রন্থে একটি গল্পের সন্ধান পাওয়া যায়। সেখানে এমনটা দাবি করা হয়েছে যে, মা পদ্মাবতীকে বিয়ে করার সময় ভগবান তিরুপতি, ভগবান কুবেরের থেকে অনেক ধন সম্পদ ধার নিয়েছিলেন। তাই তিরুপতির মন্দিরে টাকা বা মূল্যবান জিনিস নিবেদন করলে সেই দেনার ভার কমতে থাকে। এমনটা করলে লর্ড ভেঙ্কটেশ্বর তাঁর ভক্তদের দু’হাত খুলে আশীর্বাদ করেন। আর সেই আশীর্বাদ বলে প্রচুর অর্থের মালিক হয়ে উঠতে সময় লাগে না ভক্তের৷

এরপর আসা যাক ভগবান গণেশের আলোচনায়৷ এক্ষেত্রে বড়লোক হয়ে ওঠার পাশাপাশি কর্মক্ষেত্রে যদি চূড়ান্ত সফলতার স্বাদ পেতে চান, তাহলে নিয়মিত শ্রী গণেশের পুজো করতে ভুলবেন না৷ কারণ শাস্ত্র মতে ভগবান গণেশ হলেন সমৃদ্ধির দেবতা। তাই বাপ্পার আরাধনা করলে সুফল মিলতে সময় লাগে না। এক্ষেত্রে প্রতি মঙ্গলবার স্নান সেরে শ্রী বাক্রাতুন্ডা মহাকায়া সুরিয়াকোটি সমপ্রাভা নির্ভিগনাম কুরু মে দেভা সর্ব কারইয়াসু সর্ভদা এই মন্ত্রটি পাঠ করতে করতে শ্রী গণেশের পুজো করতে হবে।

এই কয়েকটি টোটকা মেনে চললেই হাতেনাতে পাবেন ফল৷ আর সেই সঙ্গে অল্প সময়েই হয়ে উঠতে পারবেন কোটিপতি৷