নয়াদিল্লি: ভারতীয় রেলের ইতিহাসে নজির তৈরি করতে চলেছে তেজস এক্সপ্রেস৷ জানানো হয়েছে তেজস এক্সপ্রেস যদি এক ঘন্টা বা তার বেশি সময় ধরে লেট চলে, তবে ক্ষতিপূরণ পাবেন যাত্রীরা৷ প্রতি যাত্রী পিছু ১০০ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে বলে খবর৷

তবে যদি তেজস এক্সপ্রেস ২ ঘন্টারও বেশি সময় ধরে লেট থাকে, তবে প্রতি যাত্রী ২৫০ টাকা করে ক্ষতিপূরণ পাবেন বলে জানানো হয়েছে রেলমন্ত্রকের তরফে৷ চৌঠা অক্টোবর এই ট্রেনের যাত্রার সূচনা করবেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ৷ দিল্লি থেকে লখনউ রুটে চলবে ট্রেনটি৷ লখনউ থেকে ট্রেনটি পথ চলা শুরু করবে৷

আইআরসিটিসির উদ্যোগে ব্যক্তিগত প্রচেষ্টায় চলবে তেজস এক্সপ্রেস৷ ২৫ লক্ষ টাকা ট্রাভেল ইনসিওরেন্সের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে তেজসের যাত্রীদের জন্য৷ এজন্য অতিরিক্ত কোনও টাকা যাত্রীদের দিতে হবে না বলেই জানানো হয়েছে৷ ইতিমধ্যেই তেজসের জন্য টিকিট বুকিং শুরু হয়েছে৷ দিল্লি থেকে লখনউ এসি চেয়ারকারের ভাড়া ১২৮০ টাকা৷ এগজিকিউটিভ চেয়ার কারের ভাড়া ২৪৫০ টাকা৷

দিল্লি থেকে কানপুরের এসি চেয়ারকারের ভাড়া ১১৫৫ টাকা৷ এগজিকিউটিভ চেয়ার কারের ভাড়া ২১৫৫ টাকা৷ জানানো হয়েছে ই ক্যাটারিংএর সুবিধা নিয়ে যাতে রেলের যাত্রীরা পছন্দমত খাবার অর্ডার দিতে পারে তা নিয়ে পরিকল্পনা করছে ভারতীয় রেল। যে সব যাত্রীরা খাবারের উপর বেশী খরচ করতে চান না তাদের জন্য পঞ্চাশ টাকায় ছোলে ভাতুরা, ধোসা বা লুচি তরকারী দেওয়ার পরিকল্পনা চলছে এবং যারা ২০০-২৫০ টাকার উপরে খরচ করতে পারবেন তারা এই ই ক্যাটারিংএর সুবিধা নিয়ে পছন্দমত খাবার অর্ডার’ করতে পারবেন বলেও জানানো হয়েছে৷