ইসলামাবাদ: আরএসএসের বিরুদ্ধে আগেও মুখ খুলেছেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। তাঁর মতে, হিন্দু রাষ্ট্রের উদ্দেশ্যেই বিজেপি সরকার একের পর এক পদক্ষেপ নিচ্ছে। এবার ফের আরএসএসের বিরুদ্ধে আক্রমণাত্মক ইমরান।

আরএসএসের একটি ভিডিও ট্যুইট করে এই বার্তা দিয়েছেন তিনি। লিখেছেন, ‘আরএসএস মুসলিম গণহত্যা শুরু করার আগে বিশ্বের অন্যান্য দেশগুলির সতর্ক হওয়া উচিৎ।’ আরএসএস-কে হিটলারের সঙ্গেও তুলনা করেছেন তিনি।

নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল পাস হয়ে যাওয়ার পর থেকেই একাধিকবার মুখ খুলেছেন ইমরান খান। ভারতের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক চুক্তি লঙ্ঘিত হবে বলে আগেই মন্তব্য করেন তিনি। এছাড়াও এই বিল আন্তর্জাতিক স্তরে মানবতাবিরোধী বলেও উল্লেখ করেছেন তিনি।

টুইট করে তিনি লেখেন, ‘এই বিলের ফলে ভারতের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক চুক্তি লঙ্ঘিত হয়েছে। আন্তর্জাতিক স্তরে মানবাধিকার বিরোধী এই বিল। সংখ্যালঘুদের অধিকার লঙ্ঘিত হবে এই বিল পাস হওয়ার ফলে।’

গত ৫ অগস্ট জম্মু এবং কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা তুলে নেয় কেন্দ্র। এই ধারা তুলে নেওয়ার পাশাপাশি জম্মু এবং কাশ্মীরকে কেন্দ্র শাসিত অঞ্চল হিসাবে ঘোষণা করে ভারত। এই ঘোষণার পর থেকেই ভারত-পাক দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক তলানিতে এসে ঠেকে।

দুই দেশের এই দ্বন্দ্বের মাঝেই পাস হয়ে যায় এই নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল। এই বিলের ফলে ৩১ ডিসেম্বর ২০১৪ সালে ভারতের পার্শ্ববর্তী দেশগুলি যেমন পাকিস্তান,আফগানিস্তান এবং বাংলাদেশের সংখ্যালঘু নাগরিক যারা ভারতে এসেছেন। তাঁদের প্রত্যেককে শরণার্থী হিসাবে ভারতের নাগরিকত্ব প্রদান করা হবে। এই শরণার্থী হিসাবে হিন্দু, ক্রিশ্চান, জৈন, শিখ এদের উল্লেখ করা হয়েছে।