ইসলামাবাদ: সব কাজ থামিয়ে দাঁড়িয়ে পড়ুন আধ ঘণ্টা। তাতেই কাশ্মীরের প্রতি সবমেদনা জানানো হবে। পাকিস্তানকে এমনই নির্দেশ দিলেন সেদেশের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। বারবার বিভিন্ন দেশের কাছে আর্জি জানিয়েও লাভ হচ্ছে না ইসলামাবাদের। তেমন কেউ পাশে এসে দাঁড়াচ্ছে না। তাই হয়ত এবার নানা অদ্ভুত নিদান দিতে শুরু করেছেন ইমরান খান।

সোমবার পাকিস্তানে কাশ্মীর প্রসঙ্গে জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ দেন ইমরান খান। সেই বক্তব্যে পাকিস্তানিদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, যাতে প্রত্যেক কাশ্মীরি প্রতি সপ্তাহে শুক্রবার করে দুপুর ১২ টা থেকে সাড়ে ১২টা পর্যন্ত দাঁড়িয়ে থাকে। এভাবেই কাশ্মীদের প্রতি সমবেদনা জানাতে বলেছেন ইমরান।
নেটিজেনরা প্রশ্ন তুলছেন, কতদিন পর্যন্ত এটা চলবে, যতদিন না কাশ্মীরটা পাওয়া যায়? পাকিস্তানিরা কাজের ক্ষতি করে কাশ্মীরিদের কোন উপকারে লাগবেন, সেই প্রশ্নও তুলেছেন অনেকে।

কাশ্মীর স্বাধীন না হওয়া পর্যন্ত এই বিষয়ে সব পদক্ষেপ নেওয়া হবে সোমবার বার্তা দিয়েছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। তিনি বলেন, যতক্ষণ পর্যন্ত কাশ্মীর স্বাধীন না হবে, প্রতিটি ফোরামে আমি এই বিষয়ে সর্বোচ্চ আওয়াজ তুলব।

নিজেকে ‘কাশ্মীরি দূত’ বলে উল্লেখ করে ইমরান খান বলেন, কাশ্মীর স্বাধীন না হওয়া পর্যন্ত আমার চেষ্টা চলবে। কাশ্মীরি জনগণকেও আমি প্রতিশ্রুতি দিচ্ছি, কাশ্মীর ইস্যুটি নিয়ে আমি সারা বিশ্বে কাজ করব।

এদিন ফের একবার পরমাণু যুদ্ধের হুঁশিয়ারি দেন তিনি। বলেন, ‘যদি কাশ্মীর দ্বন্দ্ব যুদ্ধে দিকে যায়, তাহলে মনে রাখতে হবে দুই দেশের কাছেই পরমাণু অস্ত্র আছে। আর পরমাণু যুদ্ধে কেউ জয়ী হয় না।’