ইসলামাবাদঃ  ঋণের জালে জড়িয়ে পড়েছে পাকিস্তান। এই অবস্থায় রীতিমত হাবুডুবু খেতে হচ্ছে পাকিস্তানকে। উপায় খুঁজতে কখনও চিন তো কখনও সৌদি সফর করছে পাকিস্তান প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। এই অবস্থায় ক্রমশ খরচ কমানোর কথা বলছেন প্রধানমন্ত্রী। ব্যাক্তিগতভাবে নিজে সরকারের খরচ কমানোর জন্যে একগুচ্ছ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

শুধু তিনি নয়, তাঁর মন্ত্রীদের গাড়ি কিংবা অন্যান্য খরচ কমানোর জন্যে একগুচ্ছ নির্দেশিকা দিয়েছেন। এই অবস্থায় চলতি মাসে মার্কিন সফর করবেন ইমরান খান। আগামী ২১ জুলাই তিনদিন মার্কিন সফর করবেন পাক প্রধানমন্ত্রী। আর সেই সফরেও খরচ কমাতে নজিরবিহীন সিদ্ধান্ত তাঁর।

জানা গিয়েছে, সফরের খরচ কমাতে আমেরিকাতে বিলাসবহুল হোটেলে না থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ইমরান। পাক সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবর মোতাবেক, ওয়াশিংটনে নিযুক্ত পাকিস্তানের রাষ্ট্রদূতের সরকারি বাসভবনেই ওঠার ইচ্ছাপ্রকাশ করেছেন তিনি। ইতিমধ্যে ইসলামাবাদের তরফে আমেরিকায় পাকিস্তানি দূতাবাসকে সবরকম ব্যবস্থা করার কথাও জানানো হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। আর সেই নির্দেশিকা পাওয়া মাত্র সাজিয়ে তোলা হচ্ছে পাকিস্তানের রাষ্ট্রদূতের সরকারি বাসভবন।

রাজনৈতিকমহলের মতে, খরচ কমাতে পাক প্রধানমন্ত্রীর এহেন সিদ্ধান্ত একেবারেই নজিরবিহীন। পাকিস্তানের ইতিহাসে নাকি এমন কোনও নজির নেই বলেই মনে করছেন সে দেশের রাজনীতির কারবারিরা।

যদিও পাকিস্তান প্রধানমন্ত্রীর এহেন সিদ্ধান্তকে ভালোভাবে দেখছে না মার্কিন প্রশাসন। খরচ কমাতে ইমরানের পাক রাষ্ট্রদূতের বাসভবনে থাকার ব্যাপারে আশঙ্কা প্রকাশ করেছে মার্কিন প্রশাসন। সাধারণত, আমেরিকায় নামার পর থেকেই যে কোনও কূটনীতিকের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকে মার্কিন গুপ্তচর সংস্থা। এদিকে, রাষ্ট্রদূতদের বাসভবন ওয়াশিংটনের কূটনৈতিক এনক্লেভের মধ্যে অবস্থিত। ওই এলাকায় ভারত, তুরস্ক, জাপান সহ প্রায় একডজন দেশের দূতাবাস রয়েছে। বাসভবন ছোট হওয়ায় পাক দূতাবাসেই মার্কিন আধিকারিক, রাজনৈতিক নেতৃত্ব, সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে বৈঠক করতে হবে ইমরানকে। দিনের ব্যস্ত সময়ে তাঁর যাওয়া আসায় যানজটের সমস্যা হবে বলেই মনে করছে মার্কিন প্রশাসন।

অন্যদিকে, যেভাবে লোনের বোঝা পাকিস্তানের উপর বাড়ছে তাতে আগামীদিনে পাকিস্তানের চলা দায় হয়ে পড়বে। এই অবস্থায় গত সপ্তাহে পাকিস্তানকে ৬০০ কোটি মার্কিন ডলার ঋণ দিয়েছে আন্তর্জাতিক অর্থ ভাণ্ডার। কিন্তু এর পাশাপাশি পাক সরকারকে ব্যয় নিয়ন্ত্রণে কড়া পদক্ষেপ নেওয়ার শর্তও দেওয়া হয়েছে।