করাচি: মেয়াদ ফুরনোর অনেক আগেই রীতিমতো চাপে পড়ে গিয়েছেন ইমরান খান এবং তাঁর সরকার। যেভাবে পাকিস্তানের ১১টি রাজনৈতিক দল তাকে হঠাতে জোট বেঁধেছেন তাতে বস্তুত ইমরানের এখন শিরে সংক্রান্তি দশা।

এমনকি বিরোধীরা আওয়াজ তুলেছে, ইমরান সরকারের প্রশাসন স্বৈরাচারী সরকারের চেয়েও খারাপ। ইমরানের বিরোধী দলগুলির জোট তাকে উচ্ছেদের ডাক দিয়ে দ্বিতীয় মিছিল করে।

ইমরানকে সরাতে রীতিমতো কোমর বেঁধেছে পাকিস্তানের ১১টি রাজনৈতিক দল। ইমরান বিরোধী জোটে নওয়াজ়ের দল পিএমএল (এন) এবং বিলাবতের দল পিপিপি ছাড়াও রয়েছে ছোট-বড়-আঞ্চলিক মিলিয়ে আরও ৯টি দল।

এই ১১টি দলের জোট বেঁধে গড়া হয়েছে পাকিস্তান ডেমোক্র্যাটিক মুভমেন্ট (পিডিএম)। ২০ সেপ্টেম্বর এই জোটটি তৈরি হয়েছিল। তারপর ঠিক হয় বর্তমান সরকারকে উচ্ছেদ বিভিন্ন শহরে বিক্ষোভ কর্মসূচি ও মিছিল করা হবে।

পাকিস্তান পিপলস পার্টি প্রধান বিলাবাৎ ভুট্টো জারদারির বক্তব্য, অকর্মণ্য এবং এই প্রধানমন্ত্রী এবার বাড়ি যান। তিনি রবিবার বাগ-ই জিনহাতে তার দলের এবং সহযোগী দলের সমর্থকদের নিয়ে বিশাল মিছিল করেন।

জারদারির বক্তব্য, ইতিহাস বলে কোনও স্বৈরচারী বেশিদিন ক্ষমতায় থাকতে পারেন না। সে ক্ষেত্রে এই পাপেট কতদিন থাকতে পারবেন? তিনি আরও জানান, এটা কোন নতুন লড়াই নয়, তবে এটা সিদ্ধান্তগত লড়াই।পাশাপাশি করাচির সভা থেকে ইমরানের বিরুদ্ধে আক্রমণ শানিয়েছেন নওয়াজ়-কন্যা মরিয়ম।

জেলবন্দি তথাকথিত অপরাধীদের আলোর জগতে ফিরিয়ে এনে নজির স্থাপন করেছেন। মুখোমুখি নৃত্যশিল্পী অলোকানন্দা রায়।