বিশেষ প্রতিবেদন:  যখন কেউ প্রথম লগ্নিতে প্রবেশ করেন তখন তার মাথায় বেশ কিছু প্রশ্ন দানা বাঁধে। কখন কোথায় কতটা বিনিয়োগ করা উচিত এই বিষয়ে সম্যক ধারণা পেতে চায় সে।

এইসব দ্বিধাদ্বন্দ্ব কাটিয়ে উঠতে তাকে মাথায় রাখতে হবে বেশ কয়েকটি বিষয়।

১) বিনিয়োগের আগে নিজে সজাগ ও সচেতন হতে হবে লগ্নির ব্যাপারে। বাজারের কোন ধরনের বিনিয়োগের রয়েছে এবং তাতে কতটা ঝুঁকি তা নিজে বুঝে নিতে হবে । এজন্য কিঞ্চিত পড়াশুনো জ্ঞান আহরণ করা দরকার।সেটা বই ,অনলাইন লেখা প্রয়োজনে কোন প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে প্রশিক্ষণ নিতে পারে।

২) কোন কিছু বিনিয়োগের আগে মাথায় রাখতে হবে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির আর্থিক ক্ষমতা কতটা। সেই বুঝে তাকে বিনিয়োগের পরিকল্পনা করতে হবে। আয়ের সঙ্গে সমতা রেখে বিনিয়োগ পরিকল্পনা করতে হবে।

৩) বিনিয়োগ করার আগে বুঝে নিতে হবে কতটা লগ্নি করার ঝুঁকি নিতে সক্ষম তারা।

৪) বিনিয়োগের শুরুতে ধীরে ধীরে এগোতে হবে। প্রথমেই না বুঝে অনেক টাকা বিনিয়োগ করা উচিত নয়। বিভিন্ন প্রকল্পে নজর রেখে ধীরে ধীরে লগ্নি করতে হবে।

৫) কোন একটি প্রকল্প সেটা যতই আকর্ষণীয় হোক না কেন বিনিয়োগের বদলে একাধিক প্রকল্পে টাকা ছড়িয়ে দেওয়া উচিত।তাহলে ঝুঁকিটাও কমিয়ে দেওয়া যায়। কোন একটা প্রকল্পে বিনিয়োগ করলে ঝুঁকি অনেক বেশি থাকে।

৬)শুধুমাত্র কর ছাড়ের কথা মাথায় রেখে বিনিয়োগ করা উচিত নয়। বিনিয়োগ করার সময় কর ছাড়ের দিকটা মাথায় রাখা উচিত কিন্তু সেটাই একমাত্র বিনিয়োগের মাপকাঠি হওয়া উচিত নয়।

৭) ঋণ করে বিনিয়োগ করা উচিত নয়। কারণ তাহলে ঋণ জালে সঞ্চয় অর্থ থেকে লগ্নি করা বাঞ্ছনীয়।

৮) বিনিয়োগ করলে সদা সর্বদা ওইসব প্রকল্প গুলির উপর নজর রাখতে হবে। তাহলে কোনও প্রকল্পে যদি ঝুঁকি বেড়ে যায় তাহলে তখন অবিলম্বে সেখান থেকে টাকা তুলে নিতে হবে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।