কলকাতা: উত্তর কলকাতার হেদুয়া পার্কে শুরু হয়েছে বিজ্ঞান মঞ্চের ইমিউনিটি বাজার । ২২ অক্টোবর থেকে শুরু হয়েছে এই ইমিউনিটি বাজার চলবে ২৬ পর্যন্ত। পশ্চিমবঙ্গ বিজ্ঞান মঞ্চের এক সংগঠকের বক্তব্য, গত আট নয় মাস ধরে করোনার সঙ্গে লড়াই করতে হচ্ছে গোটা বিশ্বকে। এদেশের মানুষকেও করোনাভাইরাসের মুখোমুখি হতে হয়েছে।

এই শহর বা রাজ্যের মানুষ করোনার কবল থেকে নিরাপদ নয়। যেহেতু এখনও পর্যন্ত এই রোগের কোন ভ্যাকসিন বের হয়নি। ফলে মাস্ক পরা নিয়মিত হাত ধোয়া এই রোগ প্রতিরোধের জন্য একান্ত দরকার। পাশাপাশি দরকার পুষ্টিগুণসম্পন্ন খাবার খাওয়া। ভিটামিন প্রোটিন জিংক আয়রন ইত্যাদি উপাদান রয়েছে এমন খাবার খাওয়া উচিত।

কোন ধরনের শাকসবজি তরিতরকারিতে এইসব রয়েছে সে সম্পর্কে মানুষকে সচেতন করে কম দামে তা বিক্রির উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। হেদুয়া পার্কের এই ইমিউনিটি বাজারে মোট ২০ রকমের শাক সবজি বিক্রি করা হচ্ছে বাজারের চেয়েও অনেক কম দামে বলে উদ্যোক্তারা দাবি করেছেন।

করোনা সংকটে আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত বহু মানুষ। তার উপর বাজারে সবজি তরিতরকারি থেকে মাছ ডিমের দাম আগুন। সেই সময় সস্তায় শাকসবজি মানুষের কাছে পৌঁছে দেওয়ার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি মানুষকে জানানো হচ্ছে , ওইসব শাক সবজির গুণাবলী।

এই ইমিউনিটি বাজারের প্রথম দিনেই বেশ মানুষের ভিড় লক্ষ্য করা গিয়েছে। উদ্যোক্তাদের আশা, মানুষের কাছে এই বাজারের খবর গেলে তারা উৎসাহিত হয়ে এখানে আসবেন।

এদিন বিজ্ঞান মঞ্চের পক্ষ থেকে ৩০০ জন দরিদ্র মানুষের কাছে জামাকাপড় তুলে দেওয়া হয়। নতুন জামা কাপড় তুলে দেন বিমান বসু। জামা কাপড়ের পাশাপাশি এলাকার পৌর কর্মীদের মাস্ক ও স্যানিটাইজার বিতরণ করা হয়। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট নাট্যব্যক্তিত্ব দেবশংকর হালদার।

জেলবন্দি তথাকথিত অপরাধীদের আলোর জগতে ফিরিয়ে এনে নজির স্থাপন করেছেন। মুখোমুখি নৃত্যশিল্পী অলোকানন্দা রায়।