প্রতিমা বিসর্জনকে ঘিরে বিশেষ ব্যবস্থা কলকাতা পুলিশ ও পুরসভার

0

কলকাতা: দুর্গা প্রতিমার বিসর্জন ঘিরে তৎপর কলকতা পুলিশ৷ প্রতিবারের মত এবারও থাকছে বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা৷ জানা গিয়েছে, প্রতিটি ঘাটে সাধারণ মানুষের বিসর্জন দেখার জন্য একটি নির্দিষ্ট জায়গা তৈরি করা হচ্ছে। থাকছে বিশেষ পুলিশ বাহিনী৷ এছাড়া বিশেষ ওয়াচ টাওয়ারের মাধ্যমে নজর রাখা হবে সমগ্র অবস্থার উপরেও।

জানা গিয়েছে, দূষণ প্রতিরোধের জন্য প্রতিটি ঘাটে ক্রেন রাখা হয়েছে। প্রতিমা বিসর্জনের সঙ্গে সঙ্গে মূর্তি ও অন্যান্য জিনিস জল থেকে তুলে নেওয়া হবে ক্রেনের মাধ্যমে। অতিরিক্ত আলো লাগানো হয়েছে ঘাট গুলিতে৷ বিসর্জনের সময় আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির ওপর নজর রাখার জন্য বিশেষ পুলিশ বাহিনী চারদিকে টহল দেবে। এছাড়া প্রতিটি ঘাটে ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরাও বসানো হয়েছে। সবমিলিয়ে কলকাতা পুলিশ ও কলকাতা পুরসভার যৌথ উদ্যোগে এই বছর সরকার সারা রাজ্য জুড়ে দুর্গা প্রতিমা বিসর্জনের অনুষ্ঠান করার নতুন পরিকল্পনা নিয়েছে।

সরকারি পরিকল্পনা অনুযায়ী, প্রতিমা বিসর্জনের শোভাযাত্রা হবে ১৩ অক্টোবর সন্ধ্যে ৬টা থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত। প্রতিমা বিসর্জনের পাশাপাশি পর্যটকদের জন্য রাস্তায় ও ঘাটে পর্যাপ্ত ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

জীবে প্রেম কি আদৌ থাকছে? কথা বলবেন বন্যপ্রাণ বিশেষজ্ঞ অর্ক সরকার I।