দাভোস: ভারতের আর্থিক গতি ক্রমশ দুশ্চিন্তা তৈরি করছে। ইকনমিক স্লো-ডাউন যখন দেশের মুখ্য আলোচ্য বিষয় হয়ে উঠেছে, তার মধ্যেই আরও আশঙ্কার কথা শোনাল International Monetary Fund বা আইএমএফ।

সোমবার আইএমএফের তরফে যে পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে, তাতে ভারতের অর্থনীতি আরও তলানির দিকে যাচ্ছে। পূর্বাভাস অনুযায়ী, ২০২০ তে বিশ্বের নিরিখে ভারতের আর্থিক বৃদ্ধি হবে ৩.৩ শতাংশ, ২০১৯-এ যা ছিল ২.৯ শতাংশ। এক দশক আগে তৈরি হওয়া আর্থিক মন্দার পর ভারতের আর এতটা খারাপ অবস্থা আগে কখনও হয়নি।

একধাক্কায় অনেকটাই খারাপ হয়েছে আর্থিক অবস্থা। দেশের অভ্যন্তরে চাহিদা কমেছে চোখে পড়ার মত। নন-ব্যাংকিং প্রাইভেট সেক্টরে প্রভাব পড়েছে খুব খারাপভাবে।

আশঙ্কা করা হচ্ছে, চলতি অর্থবর্ষের শেষ তিন মাসে আরও কমবে ভারতের আর্থিকবৃদ্ধি। ওয়ার্ল্ড ইকনমিক ফোরামের বার্ষিক অনুষ্ঠান শুরু হবে দাভোসে। তার দিন দুয়েক আগে এমন পূর্বাভাস দিল ওই সংস্থা। ভারতের পাশাপাশি অন্য উন্নয়নশীল রাষ্ট্রের আর্থিকবৃদ্ধির পূর্বাভাসও এদিন মিলেছে। তবে আগামী দুই অর্থবর্ষের জন্য এদেশের আর্থিক বৃদ্ধির হার বাড়ার সম্ভাবনায় জোর দিয়েছে আইএমএফ।

আইএমএফ-র মুখ্য অর্থনীতিবিদ, গীতা গোপীনাথ বলেছেন, ক্রমশ ভারতের আর্থিকবৃদ্ধি নিম্নমুখী। নন-ব্যাংকিং ক্ষেত্রের ওপর প্রভাব আর গ্রামীণ আয় হ্রাস এর পিছনে বড় কারণ। তিনি দাবি করেছেন, চিনের বৃদ্ধি ০.২% বেড়েছে। আমেরিকার সঙ্গে বাণিজ্য চুক্তি মজবুত করায় সেই দেশ এই বৃদ্ধি দেখছে।

সামনেই দ্বিতীয় মোদী সরকারের দ্বিতীয় বাজেট। আলোচনা শুরু হয়েছে ইতিমধ্যেই। আর তার আগেই আইএমএফের এই পূর্বাভাস আশঙ্কার কথা শোনাল।