স্টাফ রিপোর্টার, দিঘা: মেঘাচ্ছন্ন পরিবেশ। তার উপড়ে ঝির ঝিরে বৃষ্টি। গত কয়েকদিন ধরে দারুন উপভোগ্য হয়ে উঠেছে শীত। সপ্তাহের শেষে এমন জাঁকানো ঠাণ্ডায় শীত কাতুরে বাঙালি ঠায় নিয়েছে লেপের তলায়। কিন্তু, যারা শীতের এই কামড়কে তোয়াক্কা করেন না। উইক এন্ডে তাঁরাই জমিয়ে শীত উপভোগ করতে বেরিয়ে পড়েছে। যার রেশ পড়েছে দিঘাতেও। কারণ, বছর শুরুতেই শীত উপেক্ষা করে পর্যটকে গমগম করছে এই সৈকত শহর।

গত বৃহস্পতিবার মাঝরাত থেকেই শুরু হয়েছে বৃষ্টি। শুক্রবারও সারা দিন ধরেই চলতে থাকে বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি। শনিবার বৃষ্টি না হলেও সকাল থেকেই মেঘলা আকাশ ঘিরে রেখেছে গোটা সৈকতকে। ফলে দিঘার কনকনে ঠান্ডায় শনিবারও বেশ জবুথবু অবস্থা পর্যটকদের। তবে এখানে ঘুরতে আসা পর্যটকদের উৎসাহে কোনও ঘাটতি নেই। কনকনে ঠান্ডাতেও সুমুদ্র সৈকতে উপচে পড়ছে ভিড়।

নতুন বছরের প্রথম উইকএন্ডে শনিবার দুপুরের পর থেকেই পর্যটকদের ভিড় বাড়ে দিঘা, মন্দারমনি, তাজপুর-সহ সব সৈকত শহরেই। হোটেল বুকিংয়ের হিসেব অনুযায়ী, নিউ দিঘার বেশিরভাগ হোটেলেরই রুম আগেভাগে বুক হয়ে গিয়েছে। ফলে বছর শুরুতেই জমিয়ে শীত উপভোগ করতে মাঠে নেমে পড়েছেন ভ্রমন প্রিয় বাঙালি।

এদিকে, ওল্ড দিঘার ছবিটাও প্রায় একই রকম। আবহাওয়ার উন্নতি দেখে ব্যাপক ভিড় হতে পারে বলেই মনে করছে পুলিশ প্রশাসন। তাইতো সবদিক মাথায় রেখে পুলিশি ব্যবস্থাকে আরও জোরদার করেছে প্রশাসন। সৈকত জুড়ে চলছে পুলিশের কড়া। পাশাপাশি নুলিয়াদেরও বিপজ্জনক ঘাটগুলিতে নজরদারি চালানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে।

এক কথায়, শনিবার এবং রবিবার হওয়ার কারনে পর্যটনকেন্দ্র গুলিতে পর্যটকদের ভালো ভিড় হবে ধরে নিয়ে প্রস্তুত প্রশাসন। এদিকে, রাত পর্যন্ত বৃষ্টি হলেও শনিবার সকালে আর নতুন করে বৃষ্টি হয়নি দিঘায়। তবে কালো মেঘ ঢেকে রেখেছে সমুদ্র শহরকে।