স্টাফ রিপোর্টার, বারাসত: পুরভোটে শাসক দলকে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়লেন রাজ্য বিজেপির সাধারণ সম্পাদক সায়ন্তন বসু৷ শুক্রবার বারাসত আদালত চত্বরে দাঁড়িয়ে বললেন, তৃণমূল যে ভাষা বুঝবে, পুরভোটে সেই ভাষাতেই জবাব দেওয়া হবে। পঞ্চায়েত ভোটের মতো জোর করে ভোট করলে, ২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনে মানুষ তার জবাব দেবে। এদিন তিনি ফের অনুপ্রবেশকারীদের বাংলাদেশে তাড়ানো হবে বলেই হুংকার দিয়েছেন তিনি।

পুরনো একটি রাজনৈতিক মামলায় এদিন বারাসতের বিশেষ আদালতে হাজিরা দিতে আসেন সায়ন্তন।পুরভোট নিয়ে সায়ন্তনের বক্তব্য, ”পঞ্চায়েত ভোটে তৃণমূল গণতন্ত্র হত্যা করেছে। পুলিশ ও দুষ্কৃতীরা একজোট হয়ে ভোট করেছে। তার মধ্যেও লড়াই করে আমরা বহু পঞ্চায়েতে জিতেছি।”

তিনি আরও বলেন, ”পুরভোটে তৃণমূল যদি এবার জোর করে ভোট করে, মানুষ তার জবাব দেবে। পুলিশ ও দুষ্কৃতীরা এক হয়ে ভোট করলে আমরা থেমে থাকব না। তৃণমূল যে ভাষা বুঝবে, আমরা সেই ভাষাতেই জবাব দেব। ওঁরা গুলি ছুঁড়লে আমরা নিশ্চয়ই রসগোল্লা বা ফুল ছুঁড়ব না।”

এনপিআর বা এনআরসি নিয়ে প্রশ্নের উত্তরে বিজেপি নেতা বলেন, “ফর্ম ফিলআপ করলে কেউ ডি-ভোটার হয়ে যাবেন না। আমাদের সাফ কথা, বাংলাদেশি অনুপ্রবেশকারী মুসলমানদের আমরা থাকতে দেব না। ওদের তাড়িয়ে দেব।” বিরোধীদের অভিযোগ, বিজেপি মানুষকে মানুষ ভাবছে না। সবাইকে তাড়াতে চাইছে। মানুষ দেখছে না।

এই বিষয়ে জিজ্ঞেস করা হলে সায়ন্তন বলেন, “আমরা মানুষ খুঁজছি না তো হিন্দু বাঙালি খুঁজছি। হিন্দু বাঙালি হলে ভারতে থাকবে। বাংলাদেশের মুসলমান হলে তাড়িয়ে দেব এবিষয়ে কোনও সন্দেহ নেই। বাংলাদেশ থেকে হিন্দু বাঙালি এলে সঙ্গে কেউ অত্যাচারিত শিখভাই থাকলে সবাইকে আমরা স্থান দেব। আইনে তাই বলা হয়েছে।”