মুম্বই: বলিউড ছাড়ার সিদ্ধান্ত নেন দঙ্গল গার্ল জায়রা ওয়াসিম। ফেসবুকে এ সংক্রান্ত একটি পোস্টও দেন৷ আর তারপর থেকেই শুধু বলিপাড়ায় নয়, সমগ্র দেশে শুরু হয়েছে গুঞ্জন৷ প্রতিভাবান শিল্পীর এই ধরণের সিদ্ধান্তে অবাক হয়েছেন ছোট থেকে বড় সকলেই৷ অনেকেই মনে করেছিল জায়রার ফেসুবক হয়তো হ্যাক করে নিয়ে কেউ এই ধরণের মজা করেছে৷ কিন্তু জায়রা ট্যুইট করে জানান, তাঁর সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্ট কেউ হ্যাক করেনি৷ তিনি সেটি নিজেই দেখতেন৷

তাঁর এই সিদ্ধান্তে বলিউডের প্রবীণ অভিনেতা অনুপম খের জানান, ‘ধর্মের নামে যদি জায়রা এই সিদ্ধান্ত নিয়ে থাকে, তাহলে তা তার সিদ্ধান্ত নয়৷ হয়তো তাকে জোর করা হয়েছে৷ যদি সে সত্যি নিজে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে তাহলে তার সিদ্ধান্তকে শ্রদ্ধা করি৷ তাঁকে একা ছেড়ে দেওয়া উচিত, কিন্তু এই ঘটনায় আমি দুঃখিত৷’

প্রসঙ্গত, গতকালই বলিউড ছাড়ার সিদ্ধান্ত নেন দঙ্গল গার্ল জায়রা ওয়াসিম। আল্লাহ-এর পথ থেকে দূরে সরে যাচ্ছেন, তাই দঙ্গল গার্লের এই সিদ্ধান্ত। রবিবার সকাল সকাল এই খবর বলিউড থেকে সোশ্যাল মিডিয়ায় আলোড়ন ছড়িয়েছে। এদিন সকালে নিজের টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে বলিউডকে বিদায় জানানোর ঘোষণা করেন দঙ্গল খ্যাত জায়রা ওয়াসিম।

এই খবর সামনে আসতেই অবাক হয়ে যান সকলেই। তিনি এমন সিদ্ধান্ত নিলেন? এই প্রশ্নের উত্তর মিলেছে জায়রার করা একটি পোস্টে। সেখানে তিনি বলেন, পাঁচ বছর আগে যে সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম, সেটা আমার জীবন বদলে দিয়েছে। আমি পাঁচ বছর আগে, বলিউডে পা রাখি। আমার এই যাত্রাপথ বন্ধুর ছিল। আমি আমার অন্তরআত্মার সাথে লড়েছি ওই দিনগুলোতে। ছোট জীবনে এত বড় লড়াই আর আমি লড়তে পারব না। তাই বলিউড থেকে আমার সমস্ত সম্পর্ক ছিন্ন করছি। আমি অনেক ভেবে চিন্তে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি।”

বলিউডে কাজ করতে গিয়ে তিনি সাফল্য পেলেও এতে তাঁর ও তাঁর ধর্মের মধ্যে সুসম্পর্ক তৈরি হওয়ার ক্ষেত্রে বাধা আসছে বলে জানিয়েছেন জাইরা। জাইরার কথায়, তিনি বলিউডে ফিট কর গেলেও আসলে বলিউড তাঁর জন্য নয়।