প্রতীকী ছবি

নয়াদিল্লি: যদি পাকিস্তান জঙ্গিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে না পারে, তাহলে আমরাই ব্যবস্থা নেব। এমনটাই বললেন মার্কিন গোয়েন্দা প্রধান। ‘ভয়েস অফ আমেরিকা’র রিপোর্ট অনুযায়ী, মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা মাইক পম্পিও। বলেছেন, ‘জঙ্গিদের অস্তিত্ব যাতে আর না থাকে, তার জন্য আমরা সবরকমের ব্যবস্থা নেব।’ মার্কিন প্রতিরক্ষা সচিব জেমস ম্যাটিসের পাকিস্তান সফরের আগেই একথা বললেন তিনি।

তিনি বলেন, পাকিস্তান সফরে গিয়ে ম্যাটিস প্রথমে ভালোভাবে বলবেন। ট্রাম্পের দেওয়া বার্তা পৌঁছে দেবেন তিনি। পাকিস্তানে জঙ্গিদের স্বর্গরাজ্য নিয়ে উদ্বিগ্ন ট্রাম্প। ক্যালিফোর্নিয়ায় এক অনুষ্ঠানে পম্পিও বলেন, ‘পাকিস্তান যেহেতু কিছু করছে না, তাই আমরা সেইসব কিছু করব যাতে পাকিস্তানে জঙ্গিদের সেফ হাভেন আর টিকে না থাকে।’

মুম্বই হামলার মূলচক্রী হাফিজ সঈদ সম্প্রতি গৃহবন্দি দশা থেকে মুক্তি পাওয়ার পর পাকিস্তানের সন্ত্রাস দমনের সদিচ্ছা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছিল৷ ফের সন্ত্রাসবাদ ইস্যুতে ট্রাম্পের তোপের মুখে পড়ল পাকিস্তান৷ তালিবান এবং হাক্কানি নেটওয়ার্ককে নিয়ন্ত্রন করার জন্য কোনওরকম কোনও পদক্ষেপ নেয়নি পাকিস্তান৷ ট্রাম্পের উচ্চপদস্থ আধিকারিক সূত্রে এমনটাই অভিযোগ৷

বিশ্বজুড়ে সন্ত্রাস চালিয়ে যাচ্ছে এই দুই জঙ্গি গোষ্ঠী৷ সন্ত্রাস দমন নিয়ে যখন একাধিকবার পাকিস্তানকে কড়া বার্তা দিয়ে চলেছে আমেরিকা এবং ভারত৷ সেই মুহূর্তে সন্ত্রাসবাদে পাকিস্তানের মদত কিন্তু পাকিস্তানের সন্ত্রাসদমনের বিষয়টি কিন্তু প্রশ্নের সম্মুখীন৷ পাকিস্তানের পাশাপাশি ইসলামাবাদও কিন্তু পাকিস্তানকে যথেচ্ছভাবে সমর্থন করছে হাক্কানি নেটওয়ার্ক৷

হাক্কানি নেটওয়ার্কের প্রতিষ্ঠাতা জালালউদ্দিন হাক্কানি৷ ১১৯৫সাল থেকে হাক্কানি তালিবানদের সঙ্গে জোটবদ্ধ হয়ে বিশ্বজুড়ে সন্ত্রাসবাদ চালাচ্ছে৷ ২০১২সালে হাক্কানি নেটওয়ার্ককে সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে ঘোষণা করা হয়৷ পাশাপাশি, আল কায়েদা, তেহরিক ই তালিবান, লস্কর ই তৈবাসহ এশিয়ার জঙ্গি সংগঠনগুলির সঙ্গে হাক্কানি নেটওয়ার্কের ঘনিষ্ট যোগাযোগ রয়েছে৷

ট্রাম্প প্রশাসনের উচ্চ আধিকারিক সূত্রে খবর, পাকিস্তানের মাটিতে সন্ত্রাসবাদ মাথাচাড়া দিয়ে উঠছে দিনকে দিন৷ কিন্তু পাকিস্তানকে এই বিষয়েও ফের সাবধান করল আমেরিকা৷ যত শীঘ্র সম্ভব পাকিস্তানের মাটিতে সন্ত্রাসবাদ দমন করার কড়া বার্তা দিল ট্রাম্প প্রশাসন৷