ম্যাঞ্চেস্টার: ৩৪ ম্যাচে ৮০ পয়েন্ট। শনিবার চেলসির বিরুদ্ধে ঘরের মাঠে জিতলেই চার বছরে তৃতীয়বারের জন্য প্রিমিয়র লিগ ঢুকবে ম্যাঞ্চেস্টার সিটির ট্রফি ক্যাবিনেটে। দ্বিতীয়স্থানে থাকা সোল্কজায়েরের দলের সংগ্রহে ৩৩ ম্যাচে ৬৭ পয়েন্ট। সুতরাং, এদিনের ম্যাচে জয় মানে দ্বিতীয়স্থানে থাকা ম্যান ইউ আর কোনওভাবেই ছুঁতে পারবে না স্কাই ব্লু’দের। এই ম্যাচকে আবার চলতি মাসের শেষে ইস্তানবুলে অনুষ্ঠিত হতে চলা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনালের মহড়া হিসেবে দেখছে ফুটবলমহল।

সিটির প্রশিক্ষক পেপ গুয়ার্দিওলা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনালের প্রস্তুতি হিসেবে এই ম্যাচকে ব্যবহার করতে চাইলেও চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনালের ভাবনাকে এখনই বাড়তে দিচ্ছে না। প্রিমিয়র খেতাব পুরোপুরি নিশ্চিত না হওয়া অবধি তিনি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনালের ভাবনায় এগোবেন না। লিগ জয়ের সন্ধিক্ষণে দাঁড়িয়েও সাবধানী পেপ বলছেন ২৯ মে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনালের আগে দু’টো দলের সঙ্গে অনেক কিছু ঘটতে পারে।

পেপ বলছেন, ‘প্রিমিয়র লিগ যেহেতু এখনও হাতে ওঠেনি তাই চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনাল নিয়ে কোনও ভাবনার অবকাশ নেই এখন। প্রিমিয়র লিগ হাতে উঠলে তবেই চ্যাম্পিয়ন্স লিগ নিয়ে ভাবব। হতে পারে সেটা আগামীকাল কিংবা আগামী সপ্তাহ। প্রিমিয়র লিগ নিশ্চিত হওয়ার পরেই চ্যাম্পিয়ন্স লিগ এবং সেই সংক্রান্ত যাবতীয় বিষয়ে ফোকাস ঘুরবে।’ তবে শনিবারের ম্যাচে হার-জিতের উপর চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনালে মনস্তাত্বিকভাবে এগিয়ে থাকার বিষয়টি নির্ভর করবে বলে মনে করেন পেপ।

দিনকয়েক আগে এফএ কাপের সেমিতে চেলসির কাছে হেরেই চতুর্মুকুটের স্বপ্ন বানচাল হয়েছে সিটির। ইতিহাদে শনিবার চেলসির জয় মানে টাচেলের অধীনে সিটির বিরুদ্ধে চেলসির টানা দ্বিতীয় জয়। একইসঙ্গে খেতাব জয় দীর্ঘায়িত হবে স্কাই ব্লুজ’দের। পেপ কোনওভাবেই তেমন ফলাফল চাইছেন না। অন্যদিকে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনালের আগে চেলসির পক্ষেও এই ম্যাচ ভীষণই উল্লেখযোগ্য। কারণ প্রথম চারে থাকার র‍্যাট-রেসে লেস্টার সিটি, ওয়েস্ট হ্যামের সঙ্গে তাদের লড়াই চলছেই। শনিবারের ম্যাচে জয় প্রথম চারে থাকার বিষয় অনেকটাই নিশ্চিত করবে চেলসির। যা আগামী মরশুমে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে প্রবেশের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

চেলসি কোচ থমাস টাচেলকে নিয়ে আবার শনিবার মেগা ম্যাচের আগে সমীহ ঝড়ে পড়েছে পেপের গলায়। তিনি বলেছেন, ‘থমাসের প্রতি আমার শ্রদ্ধা অটুট। মেইনজ, ডর্টমুন্ড, পিএসজি সবজায়গাতেই ও সাফল্যের সঙ্গে কাজ করেছে এবং ওঁর দলের খেলা ভীষণই নয়নাভিরাম। আমি ওঁর কাজের ধরন সম্পর্কে ওয়াকিবহাল নই তবে ও দুর্দান্ত কাজ করে এটুকু বলতে পারি। আমি একটুও অবাক নই ওঁর প্রশিক্ষণে চেলসির উত্থানে।’

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.