ফাইল ছবি৷

রায়পুর: দ্বিতীয় দফার ভোটেও মাওবাদী আতঙ্ক। ছত্তিসগড়ের রাজনন্দগাঁওতে আইইডি বিস্ফোরণ ঘটাল মাওবাদীরা। বৃহস্পতিবার সেখানে চলছে দ্বিতীয় দফার ভোট।

এদিন সকালে মেধা ও দাব্বা গ্রামের মাঝামাঝি জায়গায় ওই বিস্ফোরণ হয় সকাল সাড়ে ১০টা নাগাদ। মানপুর-মোহরা বিধানসভার মধ্যে পড়ছে এই অঞ্চল। ওই অংশটি পড়ছে রাজনন্দগাঁও লোকসভা কেন্দ্রের মধ্যে। এই কেন্দ্রে এদিন নিরাপত্তার কারণে সকাল ৭টা থেকে দুপুর ৩টে পর্যন্ত ভোট হওয়ার কথা।

ওই অংশে নিরাপত্তার দায়িত্বে রয়েছে আইটিবিপি জওয়ানরা। এক জওয়ান আহত হয়েছে বলে খবর। এলাকা জুড়ে চলছে চিরুণি তল্লাশি। ওই কেন্দ্রের অন্যান্য বিধানসভা কেন্দ্রে ভোট চলবে বিকেল ৫টা পর্যন্ত।

রাজনন্দগাঁও, কানকের ও মহাসামুন্দ এলাকা মাও অধ্যুষিত হওয়ায়, সেখানে কড়া নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছে। ৬০০০০ জওয়ান মোতায়েন করা হয়েছে। ড্রোন থেকে চালানো হচ্ছে নজরদারি।

এদিকে, এদিনই দুই মাওবাদীকে নিকেশ করা হয়েছে ওই ছত্তিসগড়ে। প্রথম দফা ভোটের ঠিক আগে মাওবাদী হামলায় ছত্তিসগড়েই মৃত্যু হয়েছিল এক বিজেপি বিধায়কের। ভীমা মাণ্ডবীর মৃত্যুর ঘটনায় যোগ ছিল এমন দুই মাওবাদীর এনকাউন্টারে মৃত্যু হয়েছে। ছত্তিসগড়ের দান্তেওয়াড়ায় হয় সেই এনকাউন্টার।

এদিন ভোরে অপারেশন শুরু হয়। সাড়ে পাঁচটা নাগাদ প্যাট্রলিং টিম যখন ওই এলাকায় যায়, তখনই দু’পক্ষের মধ্যে গুলির লড়াই শুরু হয়। রায়পুর থেকে ৪৫০ কিলোমিটার দূরে হয় সেই এনকাউন্টার। দুই মাওবাদীর দেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

প্রথম দফা নির্বাচনের ঠিক আগের দিন ১০ এপ্রিল বিজেপি কনভয়ে হামলা চালায় মাওবাদীরা। আর তাতেই মৃত্যু হয় বীমা মাণ্ডবী নামে ওই বিজেপি বিধায়কের।